• শুক্রবার   ১৮ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৪ ১৪২৮

  • || ০৮ জ্বিলকদ ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা

অসহায় বিধবা রুমার ধান কেটে দিলেন কেন্দ্রীয় ও জেলা ছাত্রলীগ

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৮ মে ২০২১  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: করোনাভাইরাসের প্রভাবে শ্রমিক সংকট ও অর্থ সংকটের কারণে পাকা ধান কাটতে পারছিলেন না অসহায় কৃষক বিধবা রুমা বেগম । এই অবস্থায় দিশাহারা কৃষক রুমার পাশে দাঁড়িয়েছেন কেন্দ্রীয় ও জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

গত ৫ মে (বুধবার) ও আজ শুক্রবার (৭ মে) সকালে শরীয়তপুর সদর উপজেলার পালং ইউনিয়নের আচুড়া এলাকার রুমা বেগম (৫০) এর ৩২ শতক জমির বোরো ধান কেটে বাড়িতে তুলে দেন তারা। দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে কৃষক রুমার পাশে দাঁড়িয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যে দায়িত্ববোধের পরিচয় দিয়েছেন সে কারণে খুশি এলাকাবাসী ও কৃষকরা।

কৃষক রুমা বেগম বলেন, গত বছরও শ্রমিক ও অর্থ সংকটের কারণে ধান কাটতে পারছিলাম না। তখন ছাত্রলীগ আমার ধান কেটে দিয়েছে। এবছরও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যদি আমার ধান কেটে না দিতো তাহলে শ্রমিক ও অর্থের অভাবে হয়তো আমি আমার ধান বাড়িতে তুলতে পারতাম না। আমি ছাত্রলীগ নেতাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

তিনি বলেন, অন্যের ৩২ শতক জমি বরগা নিয়ে ধান চাষ করছিলাম। ধানও ভালো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি ফাহাদ হোসেন তপু বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে ধান কাটতে শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। শ্রমিক না পাওয়ায় নিজ জমির পাকা ধান কাটতে পারছিলেন না বিধবা রুমা। এই অবস্থায় শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু ভাইর নির্দেশে আমরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা স্বেচ্ছাশ্রম দিয়ে অসহায় বিধবা কৃষক রুমা বেগমের ধান কেটে দিলাম।

এসময় জেলা ছাত্রলীগের যুগ্মআহবায়ক রাশেদ উজ্জামান, জেলা ছাত্রলীগের নেতা আসাদুজ্জামান শাওন, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক রাশেদ শিকদার, জেলা ছাত্রলীগের নেতা আদনান শামিম, পৌরসভা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিব হাসানসহ জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

শরীয়তপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপসহকারী কৃষি অফিসার বৃষ্ণ পদ বিশ্বাস বলেন, এ বছর শরীয়তপুরে বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ২৪ হাজার ৪৮০ হেক্টর জমিতে। আবাদ হয়েছে ২৪ হাজার ৫১০ হেক্টর জমিতে। এ বছর লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। ফলনও হয়েছে ভালো।

এদিকে, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক অফিসের উপখাদ্য পরিদর্শক গোবিন্দ পাল জানান, এই বোরো মৌসুমে ২৭ টাকা কেজিতে দুই হাজার ৪১৮ মেট্রিক টন ধান কিনবে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক অফিস।