বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

শরীয়তপুর বার্তা
১৬৮

আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে কোন অনুপ্রবেশকারীর স্থান হবে না- অপু

প্রকাশিত: ৩ নভেম্বর ২০১৯  

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু বলেছেন, স্বাধীনতার পরপরই বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রাকে ব্যহত করার জন্য মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত শক্তিরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি। এর পরপরই  মুক্তযুদ্ধের সংগঠক তৎকালিন মন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর আত্মার আত্মীয় জাতীয় চার নেতাকে জেলের অভ্যন্তরে নির্মমভাবে হত্যা করে। তারা চেয়েছিল বাংলার মাটি থেকে আওয়ামীলীগকে চিরতরে মুছেদিতে। তাদের প্রেতাত্মারা আজ আবার সুযোগে আওয়ামীলীগের ভিতরে অনুপ্রবেশ করে আওয়ামীলীগের উন্নয়ন অভিযাত্রাকে ব্যহত করার জন্য দলের ভিতরে নানা ধরণের ষড়যন্ত্র চক্রান্ত করছে।

আওয়ামীলীগ প্রধান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সকল দুষ্ট চক্রকে প্রতিহত করে মুজিব আদর্শের চেতনায় লালিত দুর্নীতিমুক্ত, সৎ, আদর্শবান নেতাদেরকে নিয়ে আওয়ামীলীগকে সংগঠিত করবে। তাই ওয়ার্ড থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত আগামী কাউন্সিলে দলের ভিতরে কোন অনুপ্রবেশকারী যেন প্রবেশ করতে না পারে তার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান। তিনি ৩ নভেম্বর শরীয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে জেল হত্যা দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। 

জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ছাবেদুর রহমান খোকা শিকদার এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পিপি মীর্জা হজরত আলী, জেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর মৃধা, সাধারণ সম্পাদক নুহুন মাদবর। এ সময় জেলা, উপজেলা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থি’ত ছিলেন। 

জেল হত্যা দিবস পালনের অংশ হিসেবে জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, দলীয় পতাকা অর্ধনমিত করণ এবং জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুসহ শহীদ ৪ জাতীয় নেতার প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন করে।

এই বিভাগের আরো খবর