• রোববার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৬ ১৪২৭

  • || ১৬ রজব ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা

আন্তর্জাতিক মানবপাচারকারী চক্রের চার সদস্য গ্রেফতার

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি ২০২১  

আন্তর্জাতিক মানবপাচারকারী চক্রের চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গ্রেফতাররা হলেন- হাবিবুর রহমান, মামুনুর রশিদ, জামাল হোসেন এবং নাহিদুল ইসলাম পলাশ। এ সময়ে তাদের কাছ থেকে ২৮টি পাসপোর্ট, বিভিন্ন দূতাবাস, ব্যাংক ও এজেন্সির ১৯টি সিল মোহর এবং কম্বোডিয়ার ১০টি জাল ভিসা উদ্ধার করা হয়। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে মানবপাচারের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) দুপুরে সিআইডির সদর দপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি শেখ ওমর ফারুক।

শেখ ওমর ফারুক জানান, হাবিবুর রহমান, মামুনুর রশীদ, জামাল হোসেন, নাহিদুল ইসলাম পলাশ- এ চারজন মিলে গড়ে তুলেছে চক্র, তাদের সঙ্গে আরো দু'জন রয়েছে। এর বাইরে আরো কেউ জড়িত কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তারা ভুয়া জনশক্তি কর্মসংস্থান অফিস খুলে লোক সংগ্রহ করে। পরে যশোরের বেনাপোল হয়ে ভারতের হায়দাবাদ হয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয় ট্রলারে করে শ্রীলঙ্কায়। সেখানে নির্যাতন চালায় বিদেশ গমনেচ্ছুকদের উপর। কেউ কিন্তু কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে না। যেখানে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে ভারত, মালদ্বীপের দালালচক্রের।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা থানার হাতুড়াবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা আহসান হাবীব। তিনি এই চক্রের কাছে প্রতারিত হয়েছেন।

ভুক্তভোগী আহসান হাবীব বলেন, ইউরোপের দেশ মাল্টায় পাঠানোর কথা বলে এই চক্রের সঙ্গে ১২ লাখ টাকার চুক্তি হয়। পরে আমার কাছ থেকে বাংলাদেশ থাকাকালীন সময় আট লাখ টাকা নেয় তারা। এরপর ভারতে নিয়ে যায়। সেখানের হায়দারাবাদে নিয়ে আমাকে নির্যাতন চালায় এবং আরও চার লাখ টাকা আদায় করে। এরপর হায়দারাবাদ এলাকার একটি জঙ্গলে আমাকে ফেলে দেয়। পরে সেখানকার স্থানীয় লোকদের সহযোগিতায় আমি দেশে ফিরে আসি।

সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির ঢাকা মেট্রো পশ্চিমের বিশেষ পুলিশ সুপার সামসুন নাহার, অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার জাকির হোসেন এবং সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জিসানুল হক উপস্থিত ছিলেন।