বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

শরীয়তপুর বার্তা
১০০৭

কবিতা-তৃষ্ণার্ত শিশির

বাঁশরী

প্রকাশিত: ২৮ নভেম্বর ২০১৮  

চলো আজ ভাবনায় হারিয়ে যাই
ভাবনাটা কুয়াশার চাদরে মোড়া থাকবে
শীতল হু হু বাতাস বইবে পাশ ঘেসে
কিছু তাঁরা, জোনাকিপোকা, রাতের নিরবতা,
গ্রাম্য পাতি শিয়ালেরডাক, আমার শ্বাসপ্রশ্বাস,
পচা ভাপসা গন্ধ, তোমার সাথে নিতে পারো।
এখন আমার হাত শক্ত করে ধরো,
ঘরের পিঁড়া ধরে আমার সাথে হাঁটতে থাকো।
দেখো, পাশে কিন্তু পুকুর; পাড় ঘেসে হাঁটো।
আহা! শব্দ করো না, সবাই ঘুমাচ্ছে।
ঐ যে জোনাকিপোকাটা দেখছো,
ওর পিছু পিছু যাবো; তবে আমি নিশ্চিত,
ওর গন্তব্যপথ নদীর তীরের ভেজা ঘাসের উপর।
ভেজা তো কি হয়েছে? জুতো পেতে বসে পড়ো।
দেখো, আকাশটা আজ চাঁদ বিহীন তাঁরারমেলা,
নদীজল শান্ত মনে খেলা করছে আবছা আলোয়।
আজ রাতটা এখানেই শেষ করি কেমন?
শীতল বাতাসটা দারুন লাগছে, তাই না?
বেশি ঠান্ডা লাগলে বলতে পারো।
মৃদুলা শীতল বাতাসে গান ধরো; প্রেমের গান।
আজ বিরহের গান নয়, কাছে আসার গান।
কুয়াশাকে বলো তুমি, আমার মাঝে জরিয়ে নিতে।
শিশিরসিক্ত ঠোটে তোমার তাঁরারা ভিড় করেছে!
কুয়াশা জানান দিচ্ছে শিশিরের তৃষ্ণার্ততা।