• বুধবার   ১৪ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৮

  • || ০৩ রমজান ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
একদিনে করোনায় ৬৯ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬০২৮ শান্তিরক্ষীদের উপযুক্ত প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই : প্রধানমন্ত্রী বিশ্বে শান্তি নিশ্চিত করাটাই চ্যালেঞ্জ: প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ স্বীকৃতি পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাবর্তন জলবায়ু কূটনীতিতে নতুন গতির সঞ্চার হবে প্রিন্স ফিলিপের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ সরকার গঠিত হয় একাত্তরের ১০ এপ্রিল ডি-৮ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে হবে:প্রধানমন্ত্রী করোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ডি-৮ এর প্রতি প্রধানমন্ত্রী আহ্বান আজ বৈঠকে বসছেন ডি-৮ শীর্ষ নেতারা

কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ সাকিব!

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

শিরোনাম দেখে চমকে উঠতেই পারেন যে কেউ। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়লেন। সত্যিই হতে যাচ্ছে এমনটা। তবে, বাংলাদেশের টেস্ট মানে সাদা পোশাকের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেয়া হচ্ছে সাকিব আল হাসানকে। রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) বোর্ডের অন্দরমহলের সূত্র এ খবর নিশ্চিত করেছে।

গত সপ্তায় বোর্ডে চিঠি দিয়ে সাকিব জানান, এপ্রিলে বাংলাদেশের হয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলবেন না। ওই সময়ে আইপিএল খেলবেন বলে বোর্ডকে জানান সাকিব। যুক্তি আইপিএলে খেললে তার ভারতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ভালো হবে। সাকিবের চিঠির পর সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের বাসায় জরুরি বৈঠকে বসেন ক্রিকেট বোর্ডের শীর্ষ কর্তারা।

বোর্ড কর্তারা সিদ্ধান্ত নেন; কেউ খেলতে না চাইলে তাকে জোর করে টেস্ট খেলানোর পক্ষে নয় বিসিবি। তাই আইপিএলে খেলার ব্যাপারে সাকিবকে সবুজ সংকেত দিয়েছে বোর্ড। ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত হবে বলে গত বছর আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত জানিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা-আইসিসি।

এদিকে, করোনার কারণে ২০২১ সালে বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের কেন্দ্রীয় চুক্তি এখনো চূড়ান্ত করেনি বোর্ড। সাকিবের চিঠির প্রেক্ষিতে বোর্ড তার শক্ত অবস্থার কথা জানান দেওয়ার জন্য সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে সাকিবকে বাদ দেয়ার আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত জানাবে বলে আভাস মিলেছে।

এ বছরে বাংলাদেশ আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রাম বা এফটিপি অনুযায়ী বাংলাদেশ ক্রিকেট দল আরো ১০টি টেস্ট খেলবে। এপ্রিলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অ্যাওয়ে সিরিজ ২টি, জুলাইয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অ্যাওয়ে সিরিজে ২টি, আগস্টে হোম সিরিজে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২টি, নভেম্বরে দেশের মাটিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ২টি এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাওয়ে সিরিজে আরো ২টি টেস্ট খেলার কথা রয়েছে টাইগারদের।