• মঙ্গলবার   ০২ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৭ ১৪২৭

  • || ১৮ রজব ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা

খালেদা-তারেকের পর এবার জিয়াউর রহমানের জন্মদিন নিয়ে বিভ্রান্তি

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০২১  

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের জন্ম তারিখ নিয়ে বিভ্রান্তির পর এবার বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের জন্মতারিখ নিয়ে বিভ্রান্তি জনসম্মুখে এসেছে। উইকিপিডিয়ার তথ্য মতে জিয়াউর রহমানের জন্মতারিখ ১৯ জানুয়ারি হলেও বিএনপির সিনিয়র নেতারা বলছেন, তার জন্মতারিখ ১২ই ডিসেম্বর ছিলো।

এ প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা সকলে মোটামুটি বাধ্য হয়ে ১৯ জানুয়ারি জিয়াউর রহমানের জন্মদিন পালন করেছি। কিন্তু আমাদের বিভিন্ন নথিতে জিয়াউর রহমানের জন্মতারিখ ১২ই ডিসেম্বর ১৯৩৬ রয়েছে। অথচ উইকিপিডিয়াতে ১৯ জানুয়ারি,১৯৩৬ দেয়া। এটি দুঃখজনক।

এর আগে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জন্ম সাল ও স্থান নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছিলো। বিএনপির দলীয় ওয়েব সাইট ‘বিএনপি বাংলাদেশ ডটকম’- এ তারেক রহমানের জন্ম সাল ১৯৬৫ দেয়া হলেও উইকিপিডিয়া ডটকম- এ তারেকের পরিচিতিতে তার জন্ম সাল ১৯৬৭ উল্লেখ করা আছে।

জানা যায়, শুধু জন্ম তারিখ নয়, তারেক রহমানের জন্মস্থান নিয়েও বিতর্ক যোগ হয়েছে। দলের বহু নেতাকর্মীরা তার জন্মস্থান বগুড়া বললেও অনেকেই আবার বলেন তারেক রহমানের জন্ম হয়েছিল পাকিস্তানের করাচিতে। তবে তারেক রহমান উইকিপিডিয়া ডটকম- এ তার জন্মস্থান করাচি, পশ্চিম পাকিস্তান (বর্তমান পাকিস্তান) দেয়া হলেও বিএনপির দলীয় ওয়েবসাইট ‘বিএনপি বাংলাদেশ ডটকম’- এ তারেক রহমানের জন্মস্থান বগুড়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রভাবশালী সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছে, আমরা তারেক রহমানের জন্মদিন পালন করেছি। ১৯ জানুয়ারি জিয়াউর রহমানের জন্মদিন পালন করলাম। বিগত কয়েক বছর থেকে ১৫ই আগস্ট বেগম জিয়ার জন্মদিন পালন বন্ধ রেখেছি। এর বাইরে কোথায় কি আছে সেটা নিয়ে ঘাটাঘাটি করি না। এছাড়া আমরা যেটা জানি সেটাই করি। বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, এই বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারবো না।