• শনিবার   ১৫ মে ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১ ১৪২৮

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা

গোসাইরহাটের চরচানপুরে গৃহহীনদের জন্য ৫০টি আধা-পাকা ঘর নির্মান হবে

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০২১  

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মোঃ পারভেজ হাসান বলেছেন, জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর সরকারের উন্নয়নের ছোঁয়ায় আমাদের শরীয়তপুর জেলা অচিরেই সিঙ্গাপুর হবে। মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন গোসাইরহাট উপজেলার প্রকুতির সৌন্দর্যের কারনে মেঘনার চরাঞ্চাল পর্যটনের  অপার সম্ভবনার হাতছানি দিচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক ইচ্ছায় মেঘনার এই চরে বিদ্যুৎ এসেছে। রাস্তা তৈরি হয়েছে । এখানে একটি মুজিব কিল্লা তৈরি হবে। তৈরী করা হয়েছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এখানে বসবাসকারি শিশুদের জন্য শিক্ষা গ্রহনের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। জেলা প্রশাসক ২৪ এপ্রিল শনিবার সকালে জেলার গোসাইরহাট উপজেলা পরিদর্শন কালে সমবেত জনতার উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আলমগীর হুসাইন,  সহকারী কমিশনার মো. মাহবুবুল ইসলাম। জেলা প্রশাসক তার পরির্দশনের প্রথমে ইদিলপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে মেয়েদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য নির্মাণাধীন ওয়াশব্লক ও বিশ্রামাগার পরিদর্শন করেন। পরে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে একটি আমগাছ চারা  রোপণ করেন।  
এর পরে জেলা প্রশাসক উজেলার মহিষকান্দিতে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় নির্মিত ঘর পরিদর্শন করেন। বসবাসরত লোকজনের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে  মতবিনিময় করেন। এর পরে জেলা প্রশাসক গোসাইরহাট উপজেলা প্রশাসনের স্পিডবোটে চড়ে নৌপথে কুচাইপট্টি ইউনিয়নে মেঘনা নদীতে অবস্থিত নয়নাভিরাম চরজানপুর চরে যান। সেখানে  আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ঘর নির্মাণের জন্য নির্ধারিত জায়গা ও  মাটি ভরাটের  কাজ  সরেজমিন পরিদর্শন করেন। গোসাইরহাট উপজেলা থেকে নৌপথে প্রায় ৩৫ কি.মি দূরে অবস্থিত  এই চরে ৫০ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন  ব্যক্তির জন্য নির্মিত হবে ৫০ টি আধা-পাকা ঘর। পরিদর্শন শেষে চর সংলগ্ন এলাকায় তিনি ফলদ গাছ রোপণ করেন।