• শনিবার   ১০ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৭ ১৪২৭

  • || ২৮ শা'বান ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ স্বীকৃতি পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাবর্তন জলবায়ু কূটনীতিতে নতুন গতির সঞ্চার হবে প্রিন্স ফিলিপের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ সরকার গঠিত হয় একাত্তরের ১০ এপ্রিল ডি-৮ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে হবে:প্রধানমন্ত্রী করোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ডি-৮ এর প্রতি প্রধানমন্ত্রী আহ্বান আজ বৈঠকে বসছেন ডি-৮ শীর্ষ নেতারা মানুষ বাঁচাতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী টিকাদানে বিশ্বের শীর্ষ ২০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্য সম্প্রসারণে মার্কিন সরকারের সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী

গোসাইরহাটে সরকারি ৪০ শতাংশ জমি উদ্ধার

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৪ মার্চ ২০২১  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলায় সরকারি  ৪০ শতাংশ জমি উদ্ধার করেছেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন। যার বাজার মূল্য প্রায় ৫ কোটি টাকা। বুধবার (৩ মার্চ)  সকাল সাড়ে ১০টায় এই উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়ে চলে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত। দুই-একজন তাদের নিজস্ব জমি দাবি করলেও আদালতের আদেশের বাইরে তিনি কিছু করবেন না। যাদের কাগজপত্র সঠিক থাকে তারা তারা আইনের আশ্রয় নিতে পারেন।
 
জেলার গোসাইরহাট উপজেলায় নাগেরপাড়া বাজারে খালের পাশে ও বাজারে সরকারি জমিতে অবৈধ স্থাপন ভেঙে ফেলা হয়। এ বছরের ১৬ ফ্রেব্রুয়ারি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রট আদালতে মামলার রায় হয়।
 
স্থানীয় ও ভূমি অফিস সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে নাগেরপাড়া বাজারে ১ নং খতিয়ানে ২২১২ ও ২৩০৭ গং দাগে ৪০ শতক জমির ওপর ৫০ থেকে ৫৫ টি দোকান ঘর নির্মাণ করা হয়। যার বাজার মূল্য বর্তমানে প্রায় পাচ কোটি টাকা।

অবৈধ দখলদারেরা এই খাল ও সরকারি জমিতে দখল করে দোকান ঘর ভাড়া দিয়ে আসছিল। সরকার তাদের বারবার লিখিত ও মৌখিক ভাবে নোটিশ করা সত্যেও তারা বিষয়টি আমলে নেয়নি। তার প্রেক্ষিতে আজ এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে করে এই সড়কটি বড় হবে ও খাল উদ্ধার হয়।
 
সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, গোসাইরহাটের নাগারপাড়া এলাকায় সরকারি খাল, হালট ও সড়ক দখল করে অবৈধ স্থাপনা গড়ে তুলে এক শ্রেণির দখলদার। এর বিরুদ্ধে গত ২০১৯ সালে এটি মামলা করা হয়। আদালতে আদেশের প‌রিপ্রেক্ষি‌তে আজ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এর আগে আমরা স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার জন্য বেশ কয়েকবার নোটিশ করেছি।

এসময় সহযোগিতায় ছিলেন, পুলিশের ২৭ সদস্য, ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ও পল্লী বিদ্যুতের ৪ সদস্য।