মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

শরীয়তপুর বার্তা
৫৯

ঘুষের টাকাসহ দুদকের হাতে রাজস্ব কর্মকর্তা আটক

প্রকাশিত: ২২ অক্টোবর ২০১৯  

 

টাঙ্গাইল কাস্টমস, এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কার্যালয়ের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মারুফ ওরফে ফেরদৌসকে ঘুষের ১৫ হাজার টাকাসহ আটক করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
দুদক সূত্র জানায়, মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) দুপুরে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার কয়ড়া গ্রামের মনিন্দ্র পালের ছেলে গোবিন্দ কিশোর পাল তার মালিকানাধীন মুক্তা ফুড প্রডাক্টসের নিবন্ধনের জন্য টাঙ্গাইল কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কার্যালয়ে যান। ওই কার্যালয়ের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মারুফের সঙ্গে তার আলাপ হয়।

এ সময় নিবন্ধন করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন। গোবিন্দ কিশোর পাল ১৫ হাজার টাকা দিতে রাজি হন। টাকা পেয়েও সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মারুফ ওরফে ফেরদৌস মুক্তা ফুড প্রডাক্টসের নিবন্ধন করে দিতে গড়িমসি করেন। এক পর্যায়ে গোবিন্দ কিশোর পাল দুর্নীতি দমন কমিশনের টাঙ্গাইল সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে বিষয়টি জানান।
খবর পেয়েই দুদক টাঙ্গাইল সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান নেতৃত্বে দুদক কর্মকর্তারা টাঙ্গাইল কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কার্যালয়ের গিয়ে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তাকে চ্যালেঞ্জ করেন। এ সময় ঘুষ হিসেবে নেওয়া টাকার নম্বর বলার পর সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা তার কাছে থাকা টাকা বের করে দেন। পরে তাকে আটক করে দুদক কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।  
মুক্তা ফুড প্রডাক্টসের মালিক গোবিন্দ কিশোর পাল জানান, নিবন্ধনের জন্য সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মারুফকে ১৫ হাজার টাকা দেওয়ার আগে তিনি প্রতিটি এক হাজার টাকার নোটের নম্বর লিখে রেখেছিলেন।
দুদক টাঙ্গাইল সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, তাদের কাছে অভিযোগ ছিল নতুন ভ্যাট আইনের আওতায় ১৩ ডিজিটের ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন করার জন্য ঘুষ দাবি করছে ভ্যাট কর্মকর্তা। এ খবরের ভিত্তিতে তারা টাঙ্গাইল কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কার্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করেন।
তিনি আরো জানান, এ বিষয়ে দুদকের উপসহকারী পরিচালক রাজু মোহাম্মদ সারওয়ার হোসেন বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এই বিভাগের আরো খবর