• বুধবার   ১৫ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪২৭

  • || ২৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

শরীয়তপুর বার্তা
১০৭৯

দক্ষিণ আফ্রিকায় নিহত জহিরুলের দাফন সম্পন্ন

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১১ মার্চ ২০১৯  

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন রাজ্যের ক্রাইফনটেইনে পাশের ভাড়াটিয়াকে চাঁদা না দেয়ায় কাথ কাটাকাটির এক পর্যায় ছুরিকাঘাতে নিহত জহিরুল ইসলাম হাওলাদারের মরদেহ শরীয়তপুর সদর উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের মাহমুদপুর গ্রামের হাওলাদার বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। আজ সোমবার বেলা ১১টার সময় মাহমুদপুর মর্ডাণ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে নামাজে জানাযা শেষে মরদেহ দাফন করা হয়। এর আগে গতকাল রোববার বিকেল তিনটার দিকে বিমানে করে বাংলাদেশে জহিরুলের লাশ আনা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নিহত জহিরুলের বোন জামাই সুমন ফকির।
নিহত জহিরুল ইসলাম হাওলাদারের স্বজনরা জানান, জীবিকার প্রয়োজনে ২০০৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় পাড়ি জমান জহিরুল ইসলাম। ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে তিনি সর্বশেষ বাড়ি এসেছিলেন। কেপটাউন শহরের ক্রাইফনটেইন এলাকায় তার সুপার সপের দোকান রয়েছে। জহিরুলের স্ত্রী নাছিমা ইসলাম শরীয়তপুরের একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।
উল্লেখ্য, দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন রাজ্যের ক্রাইফনটেইনে থাকতেন শরীয়তপুর সদর উপজেলার মাহমুদপুর গ্রামের সাদেক আলী হাওলাদারের ছেলে জহিরুল ইসলাম। কিছুদিন আগে জহিরুল ইসলামের ভাড়া বাসায় পাশের রুমে এক স্থানীয় ভাড়া আসেন। এরপর ওই ভাড়াটিয়া জহিরুলের কাছে মদ খাওয়ার জন্য চাঁদা দাবি করেন। বিষয়টি বাড়ির মালিককে জানান জহির। এ নিয়ে শনিবার ওই ভাড়াটিয়ার সঙ্গে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় তিনি জহিরুলের পেটে ছুরিকাঘাত করেন। জহির বাঁচার জন্য রাস্তায় বের হয়ে যান। এ সময় ওই সন্ত্রাসী তাকে ধরে গলায় ছুরিকাঘাত করে ফেলে যান। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

উপজেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর