• সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৮ ১৪২৭

  • || ২৯ শা'বান ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ স্বীকৃতি পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাবর্তন জলবায়ু কূটনীতিতে নতুন গতির সঞ্চার হবে প্রিন্স ফিলিপের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ সরকার গঠিত হয় একাত্তরের ১০ এপ্রিল ডি-৮ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে হবে:প্রধানমন্ত্রী করোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ডি-৮ এর প্রতি প্রধানমন্ত্রী আহ্বান আজ বৈঠকে বসছেন ডি-৮ শীর্ষ নেতারা মানুষ বাঁচাতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী টিকাদানে বিশ্বের শীর্ষ ২০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্য সম্প্রসারণে মার্কিন সরকারের সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন প্রতিবন্ধী সানজিদা

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২১ মার্চ ২০২১  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: প্রতিবন্ধি সানজিদা পিতা মাতা হারা দশ বছরের বেশি সময় ধরে। বোনদের কাছে থেকে বড় হয়েছেন। নিজেকে বোজা না করে শিখেছের সরকারি বিভিন্ন ট্রেডের কাজ। গত ২৫ জানুয়ারি সমাজ সেবা অফিস থেকে তাকে প্রতিবন্ধী হিসেবে সিলেক্ট করা হয় মূলধনসহ একটি সেলাই মেশিন দেওয়ার। সেই অনুষ্ঠানে নিজে থাকার মত একটি ঘর চান অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসানের কাছ থেকে। কথা দেন তাকে ঘর দেওয়ার। শনিবার (২০ মার্চ) বিকেলে সিড্যার উত্তর পশ্চিম সিড্যায় ঘরটি সানজিদাকে হস্তান্তর করেন জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান।

সানজিদা মোবাশ্বেরা ডামুড্যা উপজেলার সিড্যা ইউনিয়নের মৃত আব্দুল আলী শিকদারের ছোট মেয়ে। জন্মগত ভাবেই প্রতিবন্ধী সানজিদা। পড়াশোনা করেছেন এইচএসসি পর্যন্ত।

ঘর পেয়ে আবেগ আপ্লূত সানজিদা। তিনি বলেন, জীবনে কখনও কারো ওপর নির্ভর করতে চাইনি। চেয়েছি নিজে পায়ে দাঁড়ানোর। নিজে স্বাবলম্বীন হওয়ার লক্ষে সরকারি বিভিন্ন ট্রের্ডে প্রশিক্ষণ নিয়েছি। পড়াশোনা করে এগিয়ে যেতে চেয়েছি। থাকার মত কোন ছাউনি নেই। এখন প্রধানমন্ত্রী কল্যানের জেলা প্রশাসকের সহযোগিতায় একটি ঘর পেয়েছি। এই ঘরে আমি ছোট একটি গার্মেন্টস করতে চাই। এই গার্মেন্টসের লাভ কিছু অংশ আমি আমার মত প্রতিবন্ধী উন্নয়নে কাজে লাগাবো।  

সানজিদা আরও বলেন, দশ বছর আগে আমি পিতা মাতা দুই জন কে ই হারাই। আমার বোনেরা আমার দেখা শোনা করেন। তারা পড়াশোনা চালিয়ে যাই। বাড়ির পাশে মিজান আমাকে উপজেলা সরকারি ট্রেডের প্রশিক্ষণের কথা বলে। আমিও সেই ট্রেড গুলোতে প্রশিক্ষণ নেই। গত কয়েকদিন আগে উপজেলা সমাজ সেবা অফিসের মাধ্যমে আমাকে হাতে চালিত একটি সেলাই মেশিন দেয়। সেটি আনতে গেলে আমার জীবনের কাহিনী শুনে জেলা প্রশাসক। আমি সেখানে একটি ঘরের জন্য বলি। তখন তারা আমাকে ঘর দেওয়ার কথা বলেন। আজ বাস্তব রূপ নিলো। আমি প্রধানমন্ত্রী ও তাদের জন্য দোয়া করি।

জেলা প্রশাসক পারভেজ হাসান বলেন, সানজিদা মোবাশ্বেরা যেই অদম্যতা দেখিয়েছে। তা অনেকটা বিরল। শারিরীক ভাবে যে অক্ষম আমরা তাকে দেখে বলি বিশেষ ভাবে সক্ষম। এই প্রতিকূল পরিস্থিতিতে সে যা দেখিয়েছে তাতে আমরা অনুপ্রেরণা হতে পারি। সে পারলে আমরা সক্ষম কেন আমরা পারবো না। মজিব বর্ষরে এই ক্ষনে আমরা সানজিদার পাশে দাড়াতে পেরেছি এটা ই গর্বের বিষয়। আমাদের প্রশাসন ও স্থানীয় প্রশাসনকে জনমুখী হতে হবে। জনগণের উপকারে আসতে হবে। তাদের জন্য কাজ করতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন মাঝি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মর্তুজা আল মুঈদ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফজলে এলাহী, সিড্যা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলা উদ্দিন আমিন, প্রেসক্লাবের সভাপতি সফিকুল ইসলাম সহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ সময় ঘরের আঙ্গিনায় একটি গাছের চারা রোপন করেন হয়।