• রোববার   ২৪ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১০ ১৪২৭

  • || ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা
৯৬৭

বগুড়ায় মিলল দুটি হিমালয়া গৃধিনী শকুন

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৫ জানুয়ারি ২০২১  

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলা থেকে হিমালয়া গৃধিনী জাতের একটি শকুন উদ্ধার হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলার অনন্তবালা গ্রাম থেকে শকুনটি উদ্ধার করে পরিবেশবাদী সংগঠন ‘তীর’।

এ ছাড়া মঙ্গলবার একই উপজেলার পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে আরো একটি শকুন উদ্ধারের প্রক্রিয়া চলছে। এটিও হিমালয়া গৃধিনী জাতের বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ‘তীর’ সংগঠনের সভাপতি আরাফাত রহমান। তিনি জানান, বাংলাদেশ বন বিভাগ ও আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘের (আইসিইউএন) সহযোগিতায় তীরের সদস্যরা শকুন উদ্ধারের কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

জানা যায়, দেশে একমাত্র শকুন সংরক্ষণ ও পরিচর্যা কেন্দ্র রয়েছে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার জাতীয় উদ্যান সিংড়া ফরেস্টে। উদ্ধার হওয়ার পর শকুন দুটি ওই পরিচর্যা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হবে।

সংগঠন সূত্রে জানা যায়, সোমবার শিবগঞ্জ উপজেলার অনন্তবালা গ্রামে শকুনটিকে দেখতে পেয়ে রবিউল নামে এক শিক্ষার্থী স্থানীয় সাংবাদিক উৎপল কুমারকে জানান।  উৎপল ঘটনাটি ‘তীর’ সংগঠনকে জানালে সন্ধ্যার আগে দিয়ে শকুনটিকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া হিমালয়া গ্রিফন বা গৃধীনী জাতের এই শকুনটির ওজন প্রায় ১৫ কেজি।

সংগঠনের কার্যনির্বাহী সদস্য সাব্বির আহম্মেদ শাকিল জানান, মঙ্গলবার শিবগঞ্জের পৌর এলাকায় আরো একটি শকুনের খবর পাওয়া যায়। সেটি উদ্ধারে আমরা ৩ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় অবস্থান করছি। উদ্ধার হলে দু থেকে তিন দিন তাদের পর্যবেক্ষণে রেখে সিংড়া শকুন পরিচর্যা কেন্দ্রে পাঠানো হবে।

হঠাৎ করে দেশে হিমালয়া গ্রিফন জাতের শকুন পাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে ‘তীর’ এর সভাপতি আরাফাত রহমান বলেন, শীতের সময় এসব শকুনের পাল খাদ্যের সন্ধানে ভারত, নেপাল থেকে উড়ে এ দেশে আসে। দীর্ঘদিন আকাশে উড়ে খাদ্যাভাবে তাদের মধ্যে অনেকে দুর্বল হয়ে পড়ে। তখন তারা মাটিতে নেমে আসে বা পড়ে যায়। এগুলোর কিছু শকুন আমরা খুঁজে পাই। তাদের খাবার ও অন্যান্য পরিচর্যা করে সুস্থ করে তোলা হয়।

ইত্যাদি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর