• সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৮ ১৪২৭

  • || ২৯ শা'বান ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ স্বীকৃতি পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাবর্তন জলবায়ু কূটনীতিতে নতুন গতির সঞ্চার হবে প্রিন্স ফিলিপের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ সরকার গঠিত হয় একাত্তরের ১০ এপ্রিল ডি-৮ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে হবে:প্রধানমন্ত্রী করোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ডি-৮ এর প্রতি প্রধানমন্ত্রী আহ্বান আজ বৈঠকে বসছেন ডি-৮ শীর্ষ নেতারা মানুষ বাঁচাতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী টিকাদানে বিশ্বের শীর্ষ ২০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্য সম্প্রসারণে মার্কিন সরকারের সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী

মঙ্গলের উচ্চ রেজল্যুশনের ছবি পাঠাল চীনের মহাকাশযান

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৪ মার্চ ২০২১  

চীনের তিয়ানওয়েন-১ মহাকাশযানের পাঠানো মঙ্গল গ্রহের উচ্চ রেজল্যুশনের ছবি প্রকাশ করেছে দেশটির জাতীয় মহাকাশ সংস্থা। মহাকাশযানটি বর্তমানে মঙ্গলকে প্রদক্ষিণ করছে। খবর এএফপির।

ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে দু’টি প্যানক্রোমাটিক ও একটি রঙ্গিন ছবি। মহাকাশযানটির উচ্চ রেজল্যুশনের ক্যামেরার মাধ্যমে প্যানক্রোমাটিক ছবিগুলো তোলা হয়েছে। মঙ্গলের পৃষ্ঠ থেকে ৩৩০ থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে প্রদক্ষিণ করছে তিয়ানওয়েন-১।

jagonews24

ছবিগুলোতে মঙ্গলের ভূমির চিত্র পাওয়া গেছে। মঙ্গলের ছোট গর্ত, পর্বতমালার শীর্ষ ও বালিয়াড়ি স্পষ্টভাবে দৃশ্যমান হয়েছে। ছবিতে পাওয়া মঙ্গলের সবচেয়ে বড় গোলাকার গর্তের ব্যাস ৬২০ মিটারের মতো হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। চীনের জাতীয় মহাকাশ সংস্থার (সিএনসিএ) বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা শিনহুয়া।

গতবছরের ২৩ জুলাই তিয়ানওয়েন-১ উৎক্ষেপণ করে চীন। মহাকাশযানটিতে একটি অরবিটার, একটি ল্যান্ডার ও একটি রোভার রয়েছে। এ বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি এটি মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশ করে।
তিয়ানওয়েন-১ ২২৪ দিন ধরে মহাকাশে যাত্রা করেছে এবং প্রায় ৪৭ কোটি ৫০ লাখ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। বর্তমানে এটি পৃথিবী থেকে প্রায় ২১ কোটি ২০ লাখ কিলোমিটার দূরে রয়েছে।

মঙ্গলের ওপরে আগে থেকে নির্ধারিত কক্ষপথে এটি তিন মাস প্রদক্ষিণ করবে। এরপর অবতরণের ক্যাপসুল মুক্ত করবে মহাকাশযানটি।

jagonews24

তিয়ানওয়েন-১ এর মূল লক্ষ্য হল আগামী মে অথবা জুনের দিকে মঙ্গলের মাটিতে রোভার অবতরণ করানো। সৌরজগতের সবচেয়ে বড় ‘ইমপ্যাক্ট ব্যাসিন’ ইউটোপিয়ার সমতল জায়গা ইউটোপিয়া প্ল্যানিশিয়া নামক অঞ্চলে রোভারটি অবতরণ করবে। এই অঞ্চলটি মঙ্গলের দক্ষিণ অংশে অবস্থিত। সেখানে রোভারটি বৈজ্ঞানিক গবেষণা চালাবে।

২৪০ কেজি ওজনের রোভারটির নাম এখনো রাখা হয়নি। এতে ছয়টি চাকা ও চারটি সোলার প্যানেল রয়েছে। এটি মঙ্গলের পৃষ্ঠে ঘণ্টায় ২০০ মিটার বেগে চলতে সক্ষম।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও চীনের মহাকাশযান মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশ করেছে। এর মধ্যে নাসার পারসিভিয়ারেন্স রোভারটি গত ১৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলের পৃষ্ঠে অবতরণ করেছে।