• সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৬ ১৪২৭

  • || ০৩ সফর ১৪৪২

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
করোনা নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর দুই অনুশাসন জাতিসংঘের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ, বক্তব্য দেবেন প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বহুমাত্রিক: কাদের শীতে করোনা পরিস্থিতি অবনতির ইঙ্গিত, এখনই প্রস্তুতির নির্দেশ ব্যাংকটা যেন ভালোভাবে চলে সেদিকে দৃষ্টি দিবেন : প্রধানমন্ত্রী অফিসের সামনে নেতাকর্মীদের মাথা ফাটিয়ে আন্দোলন করে বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে বিভিন্ন ব্যাংকের অনুদান করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩২, শনাক্ত ১৫৬৭ দেশে-বিদেশে ইসলাম প্রচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন আল্লামা শফী আহমদ শফী কওমি শিক্ষার আধুনিকায়নে ভূমিকা রেখেছেন : প্রধানমন্ত্রী
৭৫

যে কারণে জান্নাতে মুসার (আ.) সঙ্গে থাকবেন এক কসাই

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০  

পবিত্র কোরআনে মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালার নবী হজরত মুসা আলাইহিস সালামের নাম অন্য নবীদের তুলনায় বেশি উল্লেখ করা হয়েছে। ধারণা করা হয় যে মুসা আলাইহিস সালাম ১২০ বছর বেঁচে ছিলেন।

হজরত মুসা (আ.) এর সম্প্রদায়ের নাম ছিল বনী-ইসরাঈল। বলা হয়, তার মুজিযাসমূহ বিগত অন্যান্য নবী-রাসূলদের তুলনায় সংখ্যায় বেশি, প্রকাশের বলিষ্ঠতার দিক দিয়েও অধিক।

হজরত মুসা (আ.) একদিন আল্লাহ তায়ালার কাছে জানতে চাইলেন তার সঙ্গে জান্নাতে কে থাকবে? উত্তরে আল্লাহ পাক বললেন, তোমার সঙ্গে জান্নাতে থাকবেন এক কসাই।

মুসা (আ) অবাক হয়ে আল্লাহর কাছে জানতে চাইলেন একজন কসাই তার এমন কি আমল আছে যার কারণে আপনি আমার সঙ্গে জান্নাতে বসবাস করতে দেবেন? আমার অনেক জানতে ইচ্ছে করছে।

আল্লাহ তায়ালা বললেন, ‘হে মুসা তুমি যদি তা জানতে চাও তাহলে ওই কসাইয়ের কাছে যাও।’

মুসা (আ.) আল্লাহর কথা মতন ওই কসাইয়ের কাছে গেলেন দূর থেকে দেখতে লাগলেন ওই কসাই কি করে!

কসাই মাংস বিক্রি শেষ হলে দোকান বন্ধ করে সামান্য কিছু মাংস নিয়ে বাড়ির দিকে রওয়ানা দেয়।

মুসা( আ.) তার পেছনে পেছনে যায়। কসাই বাড়িতে গিয়ে মাংসগুলো ছোট ছোট করে কেটে রান্না করে, আর কিছু রুটি বানায়।
তার পর ঘরে ঢুকে এক বৃদ্ধ নারীকে যত্ন করে ধরে বসায় এবং তার পর মাংস আর রুটি ছোট ছোট করে খাওয়াতে থাকে।

মুসা (আ.) অবাক হয়ে সব দেখতে থাকে। কিছু ক্ষণ পর তিনি খেয়াল করেন ওই নারী কসাইয়ের কানে কানে কি যেনো বলছে আর কসাই তার কথা শুনে মুচকি মুচকি হাসছে!

খাওয়া শেষ হলে কসাই বাইরে আসে। মুসা (আ.) তার পরিচয় গোপন রেখে তাকে জিজ্ঞেস করে, ভাই ওই বৃদ্ধ নারী আপনার কানে কানে কি বললো যা শুনে আপনি হাসলেন?

কসাই উত্তরে বললো উনি আমার মা। আমি প্রতিদিন এই ভাবে আমার মাকে খাইয়ে দেই আর মা আমার কানে কানে বলে আল্লাহ তোমাকে মুসা নবীর সঙ্গে জান্নাত দান করুক আর আমি আমার মায়ের কথা শুনে হাসি, বলি কোথায় মুসা (আ.) আর কোথায় আমি!

মুসা (আ.) তার কথা শুনে কাঁদতে থাকে আর তাকে বুকে জড়িয়ে নিয়ে বলে তোমার মায়ের কথা আল্লাহ তায়ালা কবুল করেছেন। আমি মুসা যার সঙ্গে তুমি জান্নাতবাসি হবে।

মায়ের দোয়া পৃথিবীর সর্ব শ্রেষ্ঠ দোয়া যা আল্লাহর দরবারে সরাসরি কবুল হয় তাই আসুন যাদের মা বাবা বেঁচে আছে তাঁদের খেদমত করি আর যাদের মা বাবা বেঁচে নেই তাদের জন্য দোয়া করি- আল্লাহ যেনো তাদের জান্নাত বাসি করেন। আমিন।

ধর্ম বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর