• রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

শরীয়তপুর বার্তা

টাকা পাওনা বিষয় কেন্দ্র করে হত্যা করা হয় শরীয়তপুরের আকলিমাকে

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৭ জুন ২০২৪  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি : টাকা পাওনা বিষয় কেন্দ্র করে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে গলা কেটে হত্যা করা হয় আকলিমা বেগম নামের এক গৃহবধূকে। আকলিমার বাড়ি শরীয়তপুরের নড়িয়া পৌরসভার পশ্চিম লোনসিং এলাকায়। এই হত্যার বিষয়ে আজ বুধবার (২৬ জুন) দুপুরে প্রেস ব্রিফিং করেছন শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার মাহবুবুল আলম।

পুলিশ সুপার জানান, আকলিমা বেগম লোনসিং এলাকার  কালু মালের স্ত্রী। কালু মালের দুর সম্পর্কের আত্মীয় ঢাকা ২৯৬ দক্ষিণ যাত্রাবাড়ি এলাকার মো. পারভেজ। পারভেজের সঙ্গে কালুর টাকা পাওনা ঝামেলা চলছিল, তা কালুর স্ত্রী আকলিমাও জানতেন। গত ১৬ জুন দুপুরে পারভেজ ঢাকা থেকে কালু মালের বাড়িতে আসে। কালু মালকে না পেয়ে তাঁর স্ত্রী আকলিমার সাথে টাকা পাওনার বিষয়কে কেন্দ্র করে পারভেজ বাকবিতন্ডায় জরায়। বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে পারভেজ ক্ষিপ্ত হয়ে বটিদা দিয়ে আকলিমার  গলায় কোপ দেয়। পরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে হত্যা করে আকলিমাকে। পরে তাঁর নাক, কান ও গলায় থাকা সোনা ও রুপা নিয়ে পালিয়ে ঢাকায় চলে যায় পারভেজ। এঘটনায় ১৭ জুন নিহত আকলিমার বড় মেয়ে মাহামুদা আক্তার বাদী হয়ে নড়িয়া থানায় একটি মামলা করেন।

এসপি জানান, গত ২৪ জুন ঢাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় পারভেজকে। ২৫ জুন শরীয়তপুর আদালতে হাজির করা হলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন তিনি। জিজ্ঞাসবাদে পারভেজ আকলিমাকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। পারভেজ একজন মাদকসেবী। তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক মাদক ও চুরির মামলা রয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ২৫ জুলাই পলি আক্তার নামের একজনকে হত্যার দায়ে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানায় মামলা রয়েছে।