• বৃহস্পতিবার   ৩০ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৬ ১৪২৯

  • || ৩০ জ্বিলকদ ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:

দেশে কোনোভাবেই খাদ্যসংকট তৈরি হবে না: খাদ্যমন্ত্রী

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১৬ মে ২০২২  

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, ‘দেশে কোনোভাবেই খাদ্যসংকট তৈরি হবে না। খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার অবিরাম কাজ করছে।’ 

তিনি বলেন, ‘সুনামগঞ্জে সম্প্রতি বোরো ফসলের কিছু ক্ষয়ক্ষতি হলেও চাষাবাদ হয়েছে অনেক বেশি। এ থেকে আমাদের ধান-চালের শক্তিশালী একটি মজুদ গড়ে উঠবে। এ ছাড়াও, গত আউশ ও আমন ধানেরও আমাদের প্রচুর মজুদ রয়েছে। প্রচুর বৃষ্টির কারণে আগামী আউশ ফসলও ভালো হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।’ 

রোববার  (১৫ মে) দুপুরে সিলেট সদর খাদ্যগুদাম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নাজমানারা খানুম, সিলেট জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান, খাদ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (সংগ্রহ) মো. রায়হানুল কবীর, খাদ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (চলাচল ও সংরক্ষণ) মো. জামাল হোসেন, আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক সিলেট মো. মইন উদ্দিন, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক নয়ন জ্যোতি চাকমা। 

মন্ত্রী বলেন, ‘গত এক বছরে আমরা বিদেশ থেকে কোনো চাল আমদানি করিনি। আমাদের কৃষকদের উৎপাদিত ধান দিয়েই চালের চাহিদা মিটছে। তবে গম আমাদের দেশে হয় না, বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়। গম আমদানি করা হতো ইউক্রেন ও রাশিয়া থেকে। কিন্তু এই দু’দেশের যুদ্ধের সময়ে আমরা সম্প্রতি পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত থেকে ৩ লাখ মেট্রিক টন গম আমদানি করেছি। পরবর্তী সময়ে যা দরকার, তাও ভারত থেকে আমদানি করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘ভারত সরকারিভাবে গম রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেনি। তবে বেসরকারিভাবে রপ্তানি বন্ধ রয়েছে। তারা রপ্তানি বন্ধ করলেও এতে বাংলাদেশের ওপর তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না।’ 

সরকার পেঁয়াজ আমদানির চেষ্টা চালাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতে পেঁয়াজের দাম বাড়বে না। সিলেটে ধান চাল সংরক্ষণের জন্য ২৫ হাজার মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ‘সাইলো’নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। এজন্য জায়গা খোঁজা হচ্ছে। জায়গা পাওয়া গেলেই সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে শুরু হবে এর কাজ।’ 

কৃষকের ধানের সরকারি দামের বিষয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার বিভিন্নভাবে ভর্তুকি দিয়ে কৃষকদের সাহয্য করে। তাদের কাছ থেকে ঘোষণা দিয়ে দাম নির্ধারণ করে ধান কেনে। কৃষকরা যাতে বাজারে অন্যের কাছে ধান বিক্রি করে না ঠকে তাই এমনটি করা হয়। এবার ধানের যে দাম নির্ধারণ করা হয়েছে, তা আর বাড়ানো হবে না।’ 

এর আগে খাদ্যমন্ত্রী রবিবার দুপুরে বিমানের ফ্লাইটে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান। সেখান থেকে সিলেট সদর খাদ্যগুদাম পরিদর্শনে যান। পরে  তিনি সুনামগঞ্জের উদ্দেশে যাত্রা করেন।