• শনিবার   ২৬ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১২ ১৪২৯

  • || ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
যারা উন্নয়ন দেখে না, তারা চাইলে চোখের ডাক্তার দেখাতে পারে- প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আইওআরএ মন্ত্রীদের সাক্ষাৎ যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত আ.লীগ স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়: প্রধানমন্ত্রী এমপিদের ভবন প্রাঙ্গণে মীনা বাজার স্থাপন আনন্দের: স্পিকার ব্যাংকে টাকা না থাকার গুজবে চোরেরা সুযোগ নেবে: প্রধানমন্ত্রী ‘যা চাইবেন তার চেয়ে বেশি দেবো, ওয়াদা দেন নৌকায় ভোট দেবেন’ মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন সচিব সভায় ১০ নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতায় চোখের আলো ফিরে পেলেন লাকি

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতায় চোখের আলো ফিরে পেলেন ফটিকছড়ির সেই চা শ্রমিক লাকি নাথ। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) চিকিৎসা শেষে তিনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

গত ৩ সেপ্টেম্বর দেশের চা শ্রমিকদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী এক ভার্চুয়াল সভা করেন। সেখানে চা শ্রমিক লাকি মজুরি বৃদ্ধির জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানোর সময় নিজের চোখের সমস্যার কথা জানান। প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমানকে তার চোখের উন্নত চিকিৎসা করানোর নির্দেশনা প্রদান করেন। নির্দেশনার আলোকে চা শ্রমিক লাকি নাথকে ভর্তি করানো হয় নগরীর লায়ন্স চক্ষু হাসপাতালে। চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তিনি।

সুস্থ হয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে লাকি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা না পেলে আমি চোখে দেখতে পারতাম না। তার কাছে আমি বিশেষ ঋণী।’

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ২০ দিনের মধ্যে দৃষ্টিহীন চা শ্রমিকের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়। সফল অপারেশনের মাধ্যমে এখন তিনি চোখে দেখছেন। তবে পুরোপুরি সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত তার দায়িত্ব থাকবে আমাদের।’

লাকি নাথের ছোট বোন প্রতিমা নাথ বলেন, ‘বেশ ক’বছর ধরে আমার বোনের চোখের সমস্যা। তবে গত আড়াই বছর ধরে তার ডান চোখ পুরোপুরি দৃষ্টিশক্তিহীন হয়ে যায়। তার চোখের চিকিৎসা করানোর মতো সামর্থ্য আমাদের নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমার বোনের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন জেলা প্রশাসক। অপারেশনের পর এখন দুচোখে দেখতে পাচ্ছেন আমার বোন। এ জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।