• রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪৩১

  • || ০৬ মুহররম ১৪৪৬

শরীয়তপুর বার্তা

উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরে আরএসও সদস্যকে পিটিয়ে হত্যা

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০২৪  

কক্সবাজারের উখিয়ায় মধুরছড়া আশ্রয় শিবিরে মিয়ানমারের সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা সলিডারিটি অর্গানাইজেশনের (আরএসও) সদস্যকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুর ২ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহত রোহিঙ্গা সৈয়দ আমিন (৩৫) ওই আশ্রয়শিবিরের এ-৪ ব্লকের রোহিঙ্গা নুর আহমেদের ছেলে।

পুলিশ ও রোহিঙ্গা নেতারা জানান, নিহত যুবক মিয়ানমারের সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা সলিডারিটি অর্গানাইজেশনের (আরএসও) সদস্য। আধিপত্য বিস্তার এবং পূর্বশত্রুতার জের ধরে মিয়ানমারের আরেক সশস্ত্র গোষ্ঠী আরাকান স্যালভেশন আর্মির (আরসা) সন্ত্রাসীরা ছৈয়দ আমিনকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে।

এর আগে সোমবার (১০ জুন) একই আশ্রয়শিবিরে আরসার সন্ত্রাসীরা গুলি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে আরএসওর আরও তিনজন সদস্যকে। এসময় গুলিবিদ্ধ হন সাতজন রোহিঙ্গা।

রোহিঙ্গা নেতারা জানান, ‘প্রায় প্রতিদিন আশ্রয়শিবিরে মিয়ানমারের একাধিক সশস্ত্র গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘাত-সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটছে। হতাহতের ঘটনাও বাড়ছে। সন্ধ্যার পর আশ্রয়শিবিরে সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম্য বাড়ে। তখন সাধারণ রোহিঙ্গারা নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েন। অনেকে রাত কাটান চরম আতঙ্কে।’

এ বিষয়ে উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শামীম হোসেন বলেন, মিয়ানমারের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামলায় গুরুতর আহত সৈয়দ আমিনকে উদ্ধার করে আশ্রয়শিবিরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে এ হত্যার ঘটনা ঘটেছ। নিহত রোহিঙ্গা যুবক আরএসও সদস্য বলে জানা গেছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সন্ত্রাসীদের ধরতে আশ্রয়শিবিরে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বলেও উল্লেখ করে তিনি।

আশ্রয়শিবিরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ১৪ এপিবিএনের অধিনায়ক ও এডিশনাল ডিআইজি মো. ইকবাল বলেন, আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে আরসা এবং আরএসও সন্ত্রাসীরা হামলা ও গুলি চালিয়ে আশ্রয়শিবিরের পরিবেশ অশান্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। সন্ত্রাসীদের ধরতে আশ্রয়শিবিরে অভিযান চালানো হচ্ছে।