• বৃহস্পতিবার   ৩০ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৬ ১৪২৯

  • || ৩০ জ্বিলকদ ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:

পদ্মা সেতু হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২২  

পদ্মা সেতু হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। চীনা নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে গৌরবের অবকাঠামোটি বুঝে নিচ্ছে সরকার। গোটা প্রক্রিয়া শেষে ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন স্বপ্নের সেতু। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দাওয়াত পাবে বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দল। এছাড়া দাতা সংস্থার প্রতিনিধি ও কূটনীতিকরাও পাবেন আমন্ত্রণ।

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ। এখন চলছে সৌন্দর্য্যবর্ধনসহ কিছু আনুষ্ঠানিকতা। চীনা নির্মাতা প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানির কাছ থেকে পদ্মা সেতু বুঝে নেয়ার প্রক্রিয়াও শুরু করেছে সেতু বিভাগ। ইতিমধ্যেই দায়িত্ব বুঝে পেয়েছে টোল আদায়কারি প্রতিষ্ঠান। এখন উদ্বোধনের অপেক্ষা।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, জুনের শেষ দুই সপ্তাহ দেশে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। তাই ২৫ জুন উদ্বোধনের দিন সেতুতে বাড়তি কোনো আলোকসজ্জা থাকছে না।

এসবের মাঝেও স্বপ্নের পদ্মা সেতু একঝলক দেখতে মানুষের ত্বর সইছে না। অপেক্ষার প্রহর গুণছেন তারা। মনে বড় সাধ, গাড়ি হাঁকিয়ে পদ্মা পাড়ি দেয়ার। সাধারণ মানুষের এই ইচ্ছা পূরণ হবে উদ্বোধনের পরের দিন।

সেতু বিভাগের সচিব মো. মনজুর হোসেন বলেন, “হতে পারে পরের দিনের একটা সময়, জনসাধারণের চলাচলের জন্য গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে।”

কাজের প্রয়োজনে এরই মধ্যে সেতু পারি দিয়েছেন যে ক’জন সৌভাগ্যবান, তাদের মাঝে সচিব একজন।

সচিব মো. মনজুর হোসেন বলেন, “এই সেতুটা পার হতে গিয়ে যে অনুভূতি- প্রধানমন্ত্রীর কি অসাধারণ প্রজ্ঞা এখানে।”

সচিব জানান, সেতুতে এখন আর কাজের বাকি বলতে তেমন কিছু নেই।

সেতু সচিব বলেন, “প্রধানমন্ত্রী যখন উদ্বোধন করবেন, এর রেসটা যেন ৬৪ জেলায় ছড়িয়ে পড়ে তার জন্য সেখানে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।”

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দাওয়াত দেয়ার ক্ষেত্রেও তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মানছেন। দাওয়াত পাবে বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দল। এছাড়া দাতা সংস্থার প্রতিনিধি ও বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা পাবেন আমন্ত্রণ।

সচিব মো. মনজুর হোসেন বলেন, “প্রধানমন্ত্রী বলে দিয়েছেন যে এখানে সব রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে আমন্ত্রণ জানাতে। ওটা নিয়ে আমরা কাজ করছি।”

উদ্বোধনের পর প্রথম কয়েক সপ্তাহ সেতুর টোল প্লাজার ব্যাপক চাপ তৈরি হবে বলে ধারণা করছে সেতু বিভাগ।