• রোববার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৯

  • || ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর চট্টগ্রাম সফরে ৩০ প্রকল্প উদ্বোধন প্রতিবন্ধীদের ছাড়া রাষ্ট্রের সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়: শেখ হাসিনা গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে কত প্রাণ ঝরেছে হিসাব নেই পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের সর্বত্র শান্তি বজায় রাখতে সরকার বদ্ধপরিকর : প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু ট্রাস্টের সভা বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী আইসিওয়াইএফ থেকে পাওয়া সম্মাননা প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি

ড্রেজিংয়ে নাব্যতা ফিরে পেল ২৪টি নৌপথ, সাশ্রয় ৩০০ কোটি

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২  

দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান। চলতি মাসে একযোগে শেষ হয়েছে ২৪টি নৌপথের ক্যাপিটাল ড্রেজিংয়ের কাজ। নাব্যতা ফিরে পেয়েছে ২ হাজার ৩৮৬ কিলোমিটার নদীপথ। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) বলছে, প্রকল্প বাস্তবায়নে বরাদ্দের চেয়ে ৩০০ কোটি টাকার মতো কম খরচ করা হয়েছে।

নদীমাতৃক বাংলাদেশের হৃদস্পন্দন যেন এর নানা প্রান্তজুড়ে বয়ে চলা ৪০৫টি নদী। যেগুলোকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠেছে বহু শহর, বাণিজ্যকেন্দ্র। বেঁচে আছে লাখো মৎস্যজীবী, যাতায়াত করছে কোটি মানুষ, নির্ভর আন্তর্জাতিক নৌবাণিজ্যও।

তবে বহু বছর ড্রেজিংয়ের অভাব, দখল-দূষণের কবলে পড়ে যে নদীগুলো মৃতপ্রায় হয়ে গিয়েছিল এবার সেগুলো প্রাণ ফিরে পাচ্ছে। চলতি মাসেই সম্পন্ন হয়েছে ২৪টি নৌরুটের ক্যাপিটাল ড্রেজিং। নাব্যতা ফিরেছে প্রায় ৩ হাজার কিলোমিটার নদীপথের।

বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক বলেন, ২৪ নদী নিয়ে আমরা কাজ শেষ করেছি এ অর্থবছরে। সেখানে দেখা যাচ্ছে যে, প্রায় তিন হাজারের মতো নৌপথ উন্নয়ন করতে পেরেছি। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো এক হাজার ৯০০ কোটি টাকার প্রকল্প আমরা শেষ করেছি ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকায়, প্রায় ৩০০ কোটি টাকার মতো এখানে সাশ্রয় হয়েছে। তবে নৌপথগুলোকে নাব্য করতে পেরেছি ৩০০ হাজার কিলোমিটারের মতো। এতে আমরা ৬ হাজার বা সাড়ে ৬ হাজারের মতো কিলোমিটার নৌপথ নাব্য রাখতে পারছি সব মৌসুমে। আর বর্ষার সময় এটা বেড়ে গিয়ে দাঁড়াবে ১০ হাজার কিলোমিটারের মতো।

প্রকল্প পরিচালক সাইদুর রহমান বলেন, নদীগর্ভ থেকে ১ হাজার ১০৩ লাখ ঘনমিটার পলি অপসারণের পাশাপাশি ৩০২ কোটি টাকা সাশ্রয় হয়েছে, যা নৌ খাতে বিদ্যমান মেগা প্রকল্পগুলোর মধ্যে এ প্রথম।

অভ্যন্তরীণ ৫৩টি নৌরুটের নাব্য ফেরাতে ২০১০ সালে সরকারের নেয়া ড্রেজিং মহাপরিকল্পনায় এ পর্যন্ত ৩৬টি রুটের খননকাজ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি ১৭টি রুটের প্রকল্প চলমান রয়েছে।