• শনিবার   ১৬ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ১ ১৪২৮

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা

আজ আবুল হায়াতের জন্মদিন

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০২১  

একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য অভিনেতা, নাট্যরচয়িতা ও নির্মাতা আবুল হায়াতের জন্মদিন আজ। ৭৭ পেরিয়ে আজ তিনি ৭৮-এ পা রাখছেন। 

আবুল হায়াত বাংলা ১৩৫১ সালের ২৩ ভাদ্র ভারতের মুর্শিদাবাদে মো. আবদুস সালাম ও শামসুন্নাহার বেগমের ঘর আলোকিত করে পৃথিবীর বুকে জন্ম নেন। মুর্শিদাবাদের সেই আবুল হায়াতই অভিনয় দিয়ে এ দেশের নাট্যাঙ্গনকে সমৃদ্ধ করেছেন। দেশ-বিদেশে বাংলা ভাষার নাটককে করেছেন সমাদৃত।

ভারতের পশ্চিমববঙ্গে জন্ম হলেও, দেশ বিভাগের পর চলে আসেন চট্টগ্রামে। বুয়েট থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং এ পড়াশোনা পাঠ চুকিয়ে প্রকৌশলী হিসেবে নিযুক্ত হন ওয়াসায়। ওয়াসার সেই ইঞ্জিনিয়ার অভিনয় দিয়ে হয়ে উঠেন টিভি নাটকের ইতিহাসে সবচেয়ে জনপ্রিয় ‘বাবা’। অভিনয় করেছেন অসংখ্যা নাটকে।

করোনার এই মহামারীর মধ্যে জন্মদিন নিয়ে কোনোই বিশেষ পরিকল্পনা নেই তার।

এ নিয়ে আবুল হায়াত বলেন, ‘বিপাশা দেশে নেই। শুধু নাতাশা ছাড়া পরিবারের অন্যরাও কাছে নেই। এদিকে নাতাশার মেয়েরও আজ জন্মদিন। হয়তো নিজেরা নিজেরাই ঘরোয়াভাবে জন্মদিনটা উদযাপন করবো। তবে সত্যি বলতে কি অনেক দিন বাঁচার স্বপ্ন দেখি। আর বাঁচলে ইনশাআল্লাহ বাঁচার মতোই বাঁচতে হবে, সুস্থভাবে আল্লাহ যেনে বাঁচিয়ে রাখেন। সবার দোয়া চাই। কারণ পোস্ট কোভিডে সুস্থ থাকাটাই জরুরি।’

আবুল হায়াত জানান, তিনি করোনার দুই ডোজেরই টিকা নিয়েছেন। গেলো ঈদে তিনি রুবেল হাসান পরিচালিত ‘নানা বাড়ি’ নাটকে অভিনয় করেছেন। তিনি নির্মাণ করেছিলেন ‘মেঘ ময়ূরীর গল্প’ নামের একটি নাটক।

আবুল হায়াত আরও জানান, আগামী ১০ সেপ্টেম্বর থেকে তিনি সীমান্ত সজলের পরিচালনায় দিলারা জামানের সঙ্গে একটি নাটকে অভিনয় করবেন। 

পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ার সময় আবুল হায়াত মঞ্চে প্রথম ‘টিপু সুলতান’ নাটকে অভিনয় করেন। নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়ের হয়ে মঞ্চে তার প্রথম নাটক আতাউর রহমানের নির্দেশনায় ‘বুড়ো শালিকের ঘারে রোঁ’। টিভিতে তার প্রথম নাটক ছিল জিয়া হায়দারের প্রযোজনায় ‘ইডিপাস’। মঞ্চে তার নির্দেশিত প্রথম নাটক ‘আগন্তুক’ এবং টিভিতে ‘হারজিৎ’। প্রথম অভিনীত সিনেমা ঋত্বিক কুমার ঘটকের ‘তিতাস একটি নদীর নাম’। ১৯৭৪ সালে আলী যাকেরের নির্দেশনায় মঞ্চে ‘বাকী ইতিহাস’ নাটকে অভিনয় করে তিনি ‘সিকোয়েন্স অ্যাওয়ার্ড ফর ইনট্রিডিউসিং ন্যাচারালিস্টিক অ্যাক্টিং অন বাংলাদেশ স্টেজ’ অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেন। এটি বাংলাদেশে দর্শনীর বিনিময়ে প্রথম মঞ্চ নাটক।