• রোববার ২১ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

  • || ১৩ মুহররম ১৪৪৬

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ২১ জুলাই স্পেন যাবেন প্রধানমন্ত্রী আমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবে: প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রাণহানি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ

ওজন কমছে না কিছুতেই, কী কী কারণ থাকতে পারে

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

অনেকেই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য নানা কাজ করেন। কেউ খাবার কম খান, খেলেও স্বাস্থ্যকর খাবারই শুধু খান। আবার কেউ নিয়মিত শরীরচর্চা করেন। কিন্তু তাতেও কমছে না ওজন? তাহলে অন্তত কয়েকটি কথা মাথায় রাখতে হবে। করাতে হবে কিছু পরীক্ষা। এমনই পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।
দেখে নেয়া যাক, সেগুলো কী কী-

থাইরয়েড পরীক্ষা: থাইরয়েড গ্রন্থির ক্ষরণের উপর শরীরের অনেক কিছু নির্ভর করে। বিশেষ করে ওজন কেমন থাকবে, সেই বিষয়টি। কোনও কাজ করেই যদি ওজন না নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়, তাহলে অবশ্যই থাইরয়েড পরীক্ষা করাতে হবে। এমনই পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

ইনসুলিন রেজিট্যান্স এবং গ্লুকোজ টলারেন্স পরীক্ষা: ইনসুলিন রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। ইনসুলিনের ভারসাম্য নষ্ট হলে ওজন বাড়তে পারে। তাই এই পরীক্ষা করিয়ে নিতে হবে।

হরমোন পরীক্ষা: নানা ধরনের হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হলে মেদ বাড়তে পারে। তাই চিকিৎসকের পরামর্শে তাই হরমোনের পরীক্ষা করিয়ে নিতে হবে।

ফুড সেনসিটিভিটি পরীক্ষা: অনেকেরই নানা ধরনের খাবারে অ্যালার্জি থাকে। আবার এমন কেউ কেউ আছেন, যাদের বিশেষ কোনো খাবার খেলে কোনো কারণ ছাড়াই ওজন বাড়ে। এটি পরীক্ষা করলেই ধরা পড়ে।

পেটের স্বাস্থ্যের সমস্যা পরীক্ষা: খাবার হজম করার ক্ষেত্রে পেটের ব্যাকটিরিয়ার কিছু ভূমিকা রয়েছে। পেটের ব্যাকটেরিয়া ঠিকঠাক ভাবে কাজ না করলে ওজন বাড়তে পারে। তাই এই বিষয়টির পরীক্ষাও করানো দরকার।

খাবার নিয়ন্ত্রণ করে বা নিয়মিত শরীরচর্চা করেও অনেকে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন না। তারা সেটির কারণও খুঁজে পান না। এমন কোনো সমস্যা যার সঙ্গেই হোক না কেন, তাকে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। তাহলেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।