• শনিবার   ২৬ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১২ ১৪২৯

  • || ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
যারা উন্নয়ন দেখে না, তারা চাইলে চোখের ডাক্তার দেখাতে পারে- প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আইওআরএ মন্ত্রীদের সাক্ষাৎ যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত আ.লীগ স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়: প্রধানমন্ত্রী এমপিদের ভবন প্রাঙ্গণে মীনা বাজার স্থাপন আনন্দের: স্পিকার ব্যাংকে টাকা না থাকার গুজবে চোরেরা সুযোগ নেবে: প্রধানমন্ত্রী ‘যা চাইবেন তার চেয়ে বেশি দেবো, ওয়াদা দেন নৌকায় ভোট দেবেন’ মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন সচিব সভায় ১০ নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী

শেষকৃত্যের জন্য রানি এলিজাবেথের মরদেহ লন্ডনে নেয়া হল

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২  

ব্রিটেনের রানি এলিজাবেথের শবদেহবাহী যানবহরটি বাহিংহ্যাম প্যালেসের দিকে যাওয়ার সময়ে শত শত লোক ঐ রাজকীয় ভবনের বাইরে সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড়িয়েছিলেন। শবদেহটি রাজপরিবারের সদস্যরা ঐ রাজভবনে আনুষ্ঠানিক ভাবে গ্রহণ করতে যাচ্ছেন।

এর আগে সি-১৭ সামরিক বিমানে করে মরদেহটি স্কটল্যান্ডের এডিনবারা থেকে লন্ডনে গিয়ে পৌঁছোয়। ঐ বিমানে করে আরও আসেন রানির একমাত্র কন্যা, প্রিন্সেস অ্যান ও তার স্বামী স্যার টিমোথি লরেন্স। কফিনটি রাজকীয় নিয়মমতো আচ্ছাদিত ছিল।

বাকিংহ্যাম প্রাসাদের বাউ কক্ষে কফিনটি সারা রাতের জন্য রাখা হয়। বুধবার কফিনটি রাজা তৃতীয় চার্লস’এর নেতৃত্বে মিছিল করে ১১ শতকের ওয়েস্ট মিন্সটার হলে রাখা হবে । সেখানে রাষ্ট্রীয় সম্মানে রাণীর মরদেহ চারদিন রাখা হবে। দর্শনার্থীদের জন্য দিনে ২৩ ঘন্টা ঐ হলটি খোলা রাখা হবে এবং সেখানে রাজকীয় বাসভবনের সৈন্যরা প্রহরা দেবে। অনুমান করা হচ্ছে এই ঐতিহাসিক ঘটনা প্রত্যক্ষ করতে হাজার হাজার লোক ওয়েস্টমিন্সিটারে যাবেন।

গত ৮ই সেপ্টেম্বর এলজিাবেথ স্কটল্যান্ডের পার্বত্যাঞ্চলে ব্যালমোরাল দূর্গে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এবং সেখানেই চার্লস রাজা হন। মঙ্গলবার রাজা হিসেবে এই প্রথম চার্লস উত্তর আয়ারল্যান্ডে যান, তাঁর সঙ্গে ছিলেন তাঁর স্ত্রী ক্যামিলা, দ্য কুইন কনসোর্ট। তাঁরা সেখানে চার্লস’এর প্রয়াত মা’র কৃত্যানুষ্ঠানে যোগ দেন।

সোমবার এই নতুন রাজা তার বোন অ্যান ও দুই ভাই অ্যান্ড্রু ও এডওয়ার্ডকে কে নিয়ে সেন্ট জাইলস গির্জায় নীরবে প্রার্থনা করেন। এই চারজন তাদের মায়ের শবদেহের চার পাশে নত মস্তকে দাঁড়িয়ে ছিলেন।