• শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৩ ১৪২৮

  • || ১০ সফর ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা

পদ্মা সেতু এড়াতে মঙ্গলমাঝির ঘাটে ফেরি চলাচলের জন্য প্রস্তুত 

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৬ আগস্ট ২০২১  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: 

নদীতে তীব্র স্রোত থাকায় নয়দিন ধরে পদ্মা সেতুর নিচ দিয়ে ফেরি চলাচল বন্ধ। বিকল্প হিসেবে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার মঙ্গলমাঝির ঘাট থেকে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে চলাচল করবে ফেরি। এতে এড়ানো যাবে পদ্মা সেতু। 

আজ বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিটিএ) সঙ্গে সভা হওয়ার কথা রয়েছে। সভা শেষে কখন ফেরি চলাচল শুরু হবে তাঁর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিএর কারিগরি সহকারী প্রকৌশলী মো. ফয়সাল। 

প্রকৌশলী মো. ফয়সাল বলেন, নয়দিন ধরে মাদারীপুরের বাংলাবাজার থেকে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়ার নৌপথ বন্ধ। মানুষ সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমরা ২০ আগস্ট থেকে মঙ্গলমাঝির এলাকায় একটি ঘাট নির্মাণের কাজ শুরু হয়। কাজটি শেষ হয়েছে বুধবার সন্ধ্যায়৷ পরে রাতেই নারায়ণগঞ্জ থেকে আনা একটি রো রো ফেরির পন্টুন বসানো হয়েছে। আজ জেলা প্রশাসন ও বিআইডব্লিটিএ সঙ্গে একটি সভা হওয়ার কথা রয়েছে। সভা শেষে কখন ফেরি চলাচল শুরু হবে তাঁর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে আগামীকাল শুক্রবার ঘাটটি চালুর সম্ভাবনা রয়েছে। সড়ক প্রশস্ত কম হওয়ায় ওই ঘাট দিয়ে এখন ছোট গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স চলাচল করবে।

বিআইডব্লিউটিএ ও বিআইডব্লিউটিসির সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও জরিপ বিভাগ থেকে সাত্তার মাদবর, মঙ্গল মাঝিরঘাট-শিমুলিয়া নৌপথের জরিপ করা হয়। ওই নৌপথের জাজিরার নাওডোবা পদ্মা সেতুর চ্যানেল ধরে ভাটিতে ফেরিগুলো চলাচল করবে। ওই চ্যানেল দিয়ে লৌহজং টার্নিং হয়ে শিমুলিয়া যাতায়াত করবে। তখন অন্তত ৩ কিলোমিটার এলাকা পদ্মা সেতুর পাশ দিয়ে ফেরিগুলো চলাচল করবে।

বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌপথের দূরত্ব ১০ কিলোমিটার। পারাপার হতে সময় লাগত ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট থেকে ২ ঘণ্টা। সাত্তার মাদবর, মঙ্গল মাঝিরঘাট-শিমুলিয়া নৌপথের দূরত্ব ৮ কিলোমিটার। পারাপারে সময় লাগবে ১ ঘণ্টা থেকে ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট। নতুন এ ঘাটের জন্য একটি রো রো ফেরির পন্টুন আনা হয়েছে। তিন থেকে চারটি কে টাইপ ফেরি চলাচল করবে এ ঘাটে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিটিএ) সূত্র জানায়, মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া নৌপথে গত ১৮ আগস্ট থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ। স্রোতের তীব্রতা না কমা পর্যন্ত এই নৌপথে ফেরি ছাড়া হবে না। তবে জরুরি সেবা নিশ্চিত করতে ২০ আগস্ট থেকে মঙ্গলমাঝি এলাকায় নতুন করে একটি ফেরিঘাট নির্মাণের কাজ শুরু হয়। ২৫ আগস্ট সন্ধ্যায় কাজ সম্পূর্ণ হয়ে ঘাট প্রস্তুত হয়েছে।

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার মঙ্গলমাঝির লঞ্চঘাট পদ্মা নদীতে বালুভর্তি জিওব্যাগ ফেলে কিছু অংশ ভরাট করা হয়েছে। সেখানে ১০০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৫০ ফুট প্রশস্ত ঘাট নির্মাণ করা হয়। বালুভর্তি জিওব্যাগের ওপর বাঁশ, ইট ও বালু দিয়ে ঘাটটি নির্মাণ করা হয়েছে। ঘাট নির্মাণে প্রায় ৬০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) পারভেজ হাসান বলেন, আজ বিকেল ৩টার দিকে বিআইডব্লিউটিএ'র সঙ্গে জুম মিটিং হবে। সভায় সিদ্ধান্ত হবে কখন মঙ্গল মাঝিরঘাট-শিমুলিয়া ঘাটে ফেরি চলাচল করবে।

মাদারীপুরের বাংলাবাজার থেকে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়ায় নৌপথে চলাচলে চারবার পদ্মা সেতুর পিলারে আঘাত করে ফেরি। এর মধ্যে ২০ ও ২৩ জুলাই ১৬ ও ১৭ নম্বর পিলারে এবং ৯ ও ১৩ আগস্ট ১০ নম্বর পিলারে আঘাত করে ফেরি। থানায় জিডি, তদন্ত কমিটি গঠন, ফেরি চালকদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয় সেসব ঘটনায়।