• মঙ্গলবার   ৩০ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৮

  • || ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা

ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পাওয়া একমাত্র আসমা আক্তার 

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৩ নভেম্বর ২০২১  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

শরীয়তপুর সদর উপজেলায় ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকা দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে নৌকা প্রতীক পাওয়া একমাত্র নারী প্রার্থী হলেন আসমা আক্তার। তিনি সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে তাঁর ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

আসমা আক্তারের বাড়ি সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম পরসর্দি গ্রামে । তিনি ঢাকা উত্তরা দারুল এহসান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাস করেছেন। ছাত্রজীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। বর্তমানে তিনি জেলা পরিষদের সদস্য। জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক।

আসমা আক্তার বলেন, তাঁর স্বামী ডা. মনিরুল ইসলাম ছাত্রজীবন থেকে ছাত্র রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তিনি বর্তমানে শরীয়তপুর পুলিশ হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার। জেলা স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (সাচিপ) ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও বিএমএ সভাপতি। তাঁর দুই ছেলে, এক মেয়ে। 

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েই আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এসেছি। তৃণমূলে কাজ করছি। মানুষের দুয়ারে দুয়ারে যাচ্ছি। করোনাকালে এলাকার মানুষের পাশে থেকে সহযোগিতা করেছি। মানুষের বিপদে পাশে থাকতে চেষ্টা করি। দলের সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের সহযোগিতায় আশা করি আমার ইউনিয়নে নৌকা জয়ী হবে।

তিনি বলেন, আমাদের নেত্রী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারী উন্নয়ন ও নারী নেতৃত্বের বিকাশে আন্তরিক। আমরাও তাঁর আদর্শে মাঠপর্যায়ে কাজ করছি। প্রধানমন্ত্রী নৌকা প্রতীক দিয়েছেন, এটা নারী নেতৃত্বের প্রসারে অনুপ্রেরণা জোগাবে।

তাঁর স্বামী ডা. মনিরুল ইসলাম বলেন, এলাকায় আসমা জনপ্রিয়। আর তাঁর বিরুদ্ধে কারও কোনো অভিযোগও নেই। সব দিক থেকে বিবেচনা করে দল আসমাকে যোগ্য মনে করেছে। আশা করি আংগারিয়া ইউনিয়নের ভোটাররা তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবে।  

উপজেলা আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, আগামী ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে সদর উপজেলার ৯টি ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে চিতলিয়া ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্য সকলে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এই ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে না। 

আরও জানান, আংগারিয়া ইউপি নির্বাচনে দলীয়ভাবে আসমা আক্তারকে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে আংগারিয়া ইউনিয়নে ভোটার ও সাধারণ মানুষের মধ্যে উৎসাহ দেখা দিয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, সদর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ সাকিদার, চন্দ্রপুর ইউনিয়নে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম খান, চিতলিয়া ইউনিয়নে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হারুন-অর-রশিদ বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় জয়ীরা ব্যতিত আগামী ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা হলেন আংগারিয়া ইউনিয়নে আসমা আক্তার, ডোমসার ইউনিয়নে মিজান মোহাম্মদ খান, পালং ইউনিয়নে আবুল হোসেন দেওয়ান, তুলাসার ইউনিয়নে জামাল হোসাইন, রুদ্রকর ইউনিয়নে সিরাজুল ইসলাম, শৌলপাড়া ইউনিয়নে মো. আলমগীর হোসেন খান ও মাহমুদপুর ইউনিয়নে লিয়াকত হোসেন হান্নান তালুকদার নৌকা প্রতীক। এছাড়া ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও স্বতন্ত্রসহ ৩০জন চেয়ারম্যান প্রার্থীরা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী প্রচারনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে বিএনপি'র পক্ষ থেকে কোন প্রার্থী নির্বাচন করছেন না। 

এদিকে সংরক্ষিত নারী সদস্য ৮৬ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ২৭৬ জন প্রার্থীও মাঠে-ঘাটে কোমর বেঁধে অবিরাম প্রচারণা চালাচ্ছেন। নির্বাচনী সময় ঘনিয়ে আসার সাথে ইউপিগুলোর বাজার, অলি-গলি, চায়ের দোকান, হোটেল, বিভিন্ন স্থাপনা ও বসত বাড়ির সামনে পোস্টার, ব্যানারে ছেয়ে গেছে।