• রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৩ ১৪২৯

  • || ১৪ রজব ১৪৪৪

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:

ভেদরগঞ্জে দুইদিন ব্যপি কৃষক প্রশিক্ষণ সমাপ্ত

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২  

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ ভেদরগঞ্জ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ২০২২-২০২৩  অর্থ বছরে উপজেলা পরিষদ উন্নয়ন সহায়তার আওতায় কৃষক পর্যায়ে উন্নত মানের বিভিন্ন ফসলের বীজ উৎপাদন সংরক্ষণ  ওবিতরন ব্যবস্থাপনা বিষযে ২ দিনব্যাপি কৃষক- কৃষাণী  প্রশিক্ষণ  অনুষ্ঠিত হয়েছে।
 
২৭ সেপ্টেম্বর ( মঙ্গলবার) ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের শহীদ আক্কাস শহীদ মহিউদ্দিন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণে ৫ টি কৃষক মাঠ স্কুলের ৭৫ জন কৃষক- কৃষাণী  অংশ গ্রহন করে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ ফাতেমা ইসলাম এর সভাপতিত্বে সমাপনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুন। এ সময় উপস্থিত  উপস্থিত ছিলেন  উপসহকারী কৃষি অফিসার আবু হানিফ মিয়া,মামুনুর রশিদ হাসিব, আল আমিন। 
 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার  নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন,কৃষির ভিত্তি। বীজ জীবন্ত এবং প্রয়োজনীয় সব উপাদান দ্বারা এমন অনুপমভাবে সুসজ্জিত যে সঠিক সময়ে আকাঙিক্ষত স্থানে অনুকূল পরিবেশ পেয়ে নতুন বংশধরের সূচনা করতে পারে। এ জীবন্ত বস্তুটিকে পরবর্তী মৌসুম পর্যন্ত ভালোভাবে বাঁচিয়ে রাখার জন্য যেসব কাজ ও কৌশল অবলম্বন করতে হয় সেগুলোকেই বীজ সংরক্ষণ বলে। বীজ সংরক্ষণ মৌলিক তত্ত্বের একটি প্রধান নীতি হলো, যে গুণগত মান নিয়ে বীজ গুদামে ঢোকে, বাহিরে আসার পর সে মান তার চেয়ে ভালো নাও হতে পারে। মনে রাখা প্রয়োজন যে, বীজ যতই ভালো হোক না কেন তা যদি ভালোভাবে সংরক্ষণ করা না যায় তবে সে বীজ ভালো থাকবে না। সংরক্ষণকালীন সময়ে বীজের জীবন এবং বীজের মান নির্ভর করে  বীজ ফসল কর্তনপূর্ব ও পরবর্তী কাজগুলো সঠিকভাবে করা হয়েছে কিনা তার ওপর। তাই ফসল উৎপাদন বৃদ্ধির মূল উপকরণই হচ্ছে উন্নতমানের বীজ। বাংলাদেশে ভালো বীজের ব্যবহার অত্যন্ত অপ্রতুল। এর কারণ একদিকে সরকারি পর্যায়ে ভালো বীজের উৎপাদন ও বিতরণের পরিমাণ প্রয়োজনের তুলনায় খুবই অপর্যাপ্ত।
অন্যদিকে বেসরকারি পর্যায়ে ভালো বীজের উৎপাদন ও বিতরণের ব্যবস্থা এখনও বিশ্বস্তভাবে গড়ে উঠেনি। এছাড়া চাষি পর্যায়েও ভালো বীজের ব্যবহারের গুরুত্ব ব্যাপকভাবে গ্রহণ হয় নাই। বর্তমানে প্রায় ৯০% কৃষক নিজেদের  উৎপাদিত বীজ দ্বারাই নিজেদের চাহিদা পূরণ করে থাকেন। কিন্তু এ বীজ প্রকৃত গুণগত মানসম্পন্ন নয় বলে অধিক ফলন লাভ প্রায় অসম্ভব। কৃষক পর্যায়ে উন্নতমানের বীজ উৎপাদনের কলাকৌশল এবং বীজ সংগ্রহ ও সংরক্ষণের আধুনিক প্রযুক্তির অপ্রতুলতা মুখ্য কারণ। তাই কৃষি বান্দব সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা এর  আন্তরিকতা কৃষক পর্যায়ে উন্নত মানের বিভিন্ন ফসলের বীজ উৎপাদন সংরক্ষণ  ও বিতরন ব্যবস্থাপনা প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে  কৃষি বিভাগ।
 
খাদ্যে স্বয়ম্ভরতা অর্জনের জন্য ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধিই একমাত্র পথ। আর এ ফসল উৎপাদন বৃদ্ধির মূল উপকরণই হচ্ছে সুস্থ, সবল, এবং সুপুষ্ট উন্নতমানের বীজ। জেনে রাখা ভালো বীজকে বলা হয় ‘শান্তির দূত’; ‘ভালো বীজে করলে চাষ, ফলন দ্বিগুণ,মিটবে আশ’।