• শনিবার   ২৯ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১৬ ১৪২৮

  • || ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা

গেম খেলতে গিয়ে ফোন স্লো? কী করবেন?

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০২১  

দুর্দান্ত গেম খেলার জন্য স্মার্টফোনে চাই চোখ ধাঁধানো স্পেসিফিকেশন। তবে আজকাল দুর্দান্ত স্পেসিফিকেশনের জন্য আর ফ্ল্যাগশিপ ফোন কেনার প্রয়োজন হয় না। মোটামুটি মানের ফোনেই এমন স্পেসিফিকেশন থাকে যা হাই গ্রাফিক্স গেমিংয়ের জন্য যথেষ্ট। 

নতুন ফোনে গেম খেলতে সমস্যা না হলেও ফোন যত পুরনো হয় ধীরে ধীরে গেমও স্লো হতে থাকে। এই সময় অনেকেই নতুন ফোন কেনার কথা ভাবলেও কয়েকটি সহজ উপায়ে স্মার্টফোনে গেমিং পারফর্মেন্স উন্নতি করা সম্ভব। স্মার্টফোনে তুলনামূলক কম শক্তিশালী হার্ডওয়্যার থাকলেও এই উপায়গুলি কাজে লাগবে। 

দেখে নিন কী কী করবেন?

​ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ

গেম খেলা শুরুর আগে ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে যত অ্যাপ আছে সব বন্ধ করে নিন। এই সব অ্যাপ ফোনে মেমোরি দখল করে বসে থাকে। তাই ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ বন্ধ করলে ফোনের মেমোরি এক ধাক্কায় অনেকটা ফাঁকা হয়ে যাবে। যা ফোনের পারফর্মেন্স ভালো করতে সাহায্য করবে। ফলে মসৃণ হবে গেম খেলার অভিজ্ঞতা।

​ব্যাকগ্রাউন্ড সার্ভিস

ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপের মতোই ব্যাকগ্রাউন্ড সার্ভিসও ফোনের রিসোর্স অনেকটা নষ্ট করে। তাই ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপের মতোই গেম খেলা শুরু করার আগে ব্যাকগ্রাউন্ড সার্ভিসগুলি ডিসেবেল করে দিন।

​অ্যাপ আপডেট

ব্যাকগ্রাউন্ডে অ্যাপ আপডেট চলতে থাকলে তা অনেকটা ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ নিয়ে নেবে। তাই গেম খেলার সময় যে ব্যান্ডউইথ প্রয়োজন তা পাওয়া যাবে না। যা গেম খেলার অভিজ্ঞতাকে খারাপ করে দিবে। 
এছাড়াও অ্যাপ ইনস্টল হওয়ার সময় ব্যবহার হয় ফোনের সিস্টেম রিসোর্স। তাই গেম খেলার সময় অ্যাপ আপডেট ডিসেবল করে রাখুন।

ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের চাপ কমান

ওয়াইফাই নেটওয়ার্কের সঙ্গে অন্য যে সব ডিভাইস যুক্ত রয়েছে সেই ডিভাইস থেকে ডাউনলোড চললে অথবা ভিডিও স্ট্রিমিং হলে তা বন্ধ করে দিন। 

​গেম সার্ভার

অনলাইন গেম খেলা শুরু করার আগে সার্ভার পছন্দ করতে হয়। সব সময় যেখানে বসে গেম খেলছেন সেই স্থান থেকে নিকটবর্তী সার্ভারটি পছন্দ করুন। এর ফলে আপনার গেম খেলার পিং কমে যাবে। যা ভালো গেমিংয়ে সাহায্য করবে।

​গেম গ্রাফিক্স

স্মার্টফোনের সক্ষমতা অনুযায়ী গ্রাফিক্স সেটিংস ঠিক করুন। মিডরেঞ্জ ফোনে আলট্রা হাই গ্রাফিক্স ব্যবহার করলে গেমে ল্যাগ হবে অথবা ফ্রেম ড্রপ হবে। তাই মসৃণ গেমিংয়ের জন্য সঠিক গ্রাফিক্স সেটিংস পছন্দ করা গুরুত্বপূর্ণ।

​ইন্টারনেট কানেকশন

উপরের কোনও উপায় কাজে না দিলে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আপনার ইন্টারনেট কানেকশনে কোন সমস্যা থাকলে তা ঠিক করে নিন।

​পারফর্মেন্স মোড

আজকাল প্রায় সব স্মার্টফোনেই গেম খেলার জন্য পৃথক গেমিং পারফর্মেন্স মোড থাকে। এই মোড এনেবেল করলে ফোনের প্রসেসর গেমিংয়ের জন্য তৈরি হয়ে যায়। তাই গেম খেলা শুরু করার আগে এনেবেল করুন গেমিং পারফর্মেন্স মোড।

​পাওয়ার সেভিং মোড

গেম খেলার সময় পাওয়া সেভিং মোড বন্ধ করে দিন। এই মোডে ব্যাটারি বাঁচানোর জন্য বিভিন্ন হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার ফিচার বন্ধ করে রাখা থাকে। ফলে এই মোডে গেম খেললে ল্যাগ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। অনেক সময় ২০ শতাংশ কম ব্যাটারি থাকলে ফোনে নিজে থেকেই পাওয়ার সেভিং মোড এনেবেল হয়ে যায়। গেম খেলার সময় এই ফিচার বন্ধ করে দিন।