• বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী আইসিওয়াইএফ থেকে পাওয়া সম্মাননা প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা বাংলাদেশ যেন দুর্ভিক্ষের কবলে না পড়ে: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত-দুর্যোগে নারীদের দুর্দশা বহুগুণ বাড়ে: প্রধানমন্ত্রী

ক্যান্সারের চিকিৎসায় এগিয়ে আসছে কণা পদার্থবিদ্যা

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০২২  

ইউরোপের বিজ্ঞান ল্যাব সার্নের (ইউরোপিয়ান কাউন্সিল ফর নিউক্লিয়ার রিসার্চ)-এর গবেষকরা, যারা নিয়মিতভাবে কণা পদার্থবিদ্যা ব্যবহার করে মহাবিশ্ব সম্পর্কে আমাদের বোঝাপড়া নিয়ে চ্যালেঞ্জিং কাজ করেন, তারাও তাদের নৈপুণ্য প্রয়োগ করে ক্যান্সার চিকিৎসার বাধা অতিক্রম করতে চেষ্টা চালাচ্ছেন।

এখানকার পদার্থবিদরা ক্যান্সার রেডিয়েশন থেরাপির নাগাল প্রসারিত করার উপায়গুলোর সন্ধানে দৈত্যাকার কণা ত্বরণকারীর সাথে কাজ করছেন এবং টিউমারগুলোর গভীরে সুনির্দিষ্ট আঘাত হানার উপায় খুঁজছেন।  

সার্নের লাইনার ইলেকট্রন এক্সিলেটর ফর রিসার্চ (সিএলইএআর) নামে ল্যাবের গবেষণা সমন্বয়কারী রবার্তো করসিনি একটি বৃহৎ, রৈখিক কণা ত্বরণকারীর পাশে দাঁড়িয়েছেন যার এক প্রান্তে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে প্যাক করা টিউবসহ একটি ৪০-মিটার ধাতব বিম, এবং পরিমাপের যন্ত্রগুলোর একটি বিস্তৃত অ্যারে এবং রঙিন তার ও ক্যাবলগুলি তার পাশে রয়েছে।

সাম্প্রতিক পরিদর্শনের সময় তিনি এএফপি’কে বলেছেন, এখানে গবেষণাটি ইলেকট্রনের খুব উচ্চ শক্তির রশ্মি তৈরি করার জন্য। একটি পরমাণুর নিউক্লিয়াসে ঋণাত্মক চার্জযুক্ত কণা -যা অবশেষে ক্যান্সার কোষকে আরও কার্যকরভাবে মোকাবেলা করতে সহায়তা করতে পারে।

করিসিনি বলেন, তারা ‘শরীরের গভীর বসে থাকা টিউমারগুলির চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় শক্তিগুলিতে ইলেকট্রনকে ত্বরান্বিত করার জন্য একটি প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা করছেন। যা ১০০ মিলিয়ন ইলেকট্রন ভোল্টের উপরে’ (এমইভি)। 

ধারণাটি হল এই অতি উচ্চ শক্তির ইলেকট্রনগুলি (ভিএইচইই) ফ্ল্যাশ নামক একটি নতুন এবং প্রতিশ্রুতিশীল চিকিৎসা পদ্ধতির সাথে একত্রে ব্যবহার করা যাবে।

এই পদ্ধতিটি বর্তমান পদ্ধতির মতো মিনিটের পরিবর্তে কয়েকশ’ মিলিসেকেন্ডে বিকিরণ ডোজ সরবরাহ করে।

এটিতে ক্যানসার টিউমারের উপর একই ধ্বংসাত্মক প্রভাব দেখানো হয়েছে। তবে আশপাশের সুস্থ্য টিস্যুর অনেক কম ক্ষতি করে।

সার্নের তথ্য কর্মকর্তা বেনজামিন ফিচ বলেন, প্রথাগত রেডিও থেরাপি ‘টিউমার কোষের সমান্তরাল সুস্থ্য কোষগুলোর ক্ষতি করে।’ কিন্তু তাদের এই সংক্ষিপ্ত, তীব্র ফ্ল্যাশ চিকিৎসা সঠিকভাবে ক্যানসার কোষগুলো ধ্বংস করে এবং সুস্থ্য কোষগুলোর ওপর ক্ষতিকর  প্রভাব হ্রাস করে।’

ফ্লাস প্রথম ২০১৮ সালে রোগীদের উপর ব্যবহার করা হয়েছিল। বর্তমানে উপলব্ধ মেডিকেল লিনিয়ার এক্সিলারেটর, লিন্যাকের উপর ভিত্তি করে প্রায় ৬-১০ এমইভি এর কম-শক্তি ইলেক্ট্রন বিম প্রদান করে।

যদিও এত কম শক্তিতে বীমগুলি গভীরভাবে প্রবেশ করতে পারে না। যার অর্থ অত্যন্ত কার্যকর চিকিৎসা এখনও পর্যন্ত শুধুমাত্র ত্বকের ক্যান্সারের সাথে পাওয়া সুপারফিসিয়াল টিউমারগুলিতে ব্যবহৃত হয়েছে।

কিন্তু সার্ন পদার্থবিদরা এখন ফ্ল্যাশ ডেলিভারির জন্য একটি মেশিন তৈরি করতে লউসেন ইউনিভার্সিটি হসপিটাল (সিএইচইউভি) এর সাথে সহযোগিতা করছেন। যা ১০০ থেকে ২০০ এমইভি পর্যন্ত ইলেকট্রনকে ত্বরান্বিত করতে পারে। এটি আরও অনেক কঠিন-নাগালের টিউমারের জন্য ব্যবহার করা সম্ভব হবে।

সার্জারি, কেমোথেরাপি বা প্রথাগত রেডিয়েশন থেরাপি ব্যবহার করে শরীরের গভীরে থাকা ক্যান্সারের টিউমারগুলিকে নির্মূল করা যায় না। সে ক্ষেত্রে আমরা এই টিউমার লক্ষ্য করে ফ্লাস তৈরি করছি। সিএইচইউভি-এর রেডিওলজি বিভাগের প্রধান প্রফেসর জিন বোরহিস এএফপি’কে বলেন, ‘যে সব ক্যান্সার এই মুহূর্তে নিরাময় করা যাচ্ছে না সেগুলোই আমাদের গবেষণার লক্ষ্য।’