• বুধবার ২৯ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪৩১

  • || ২০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ বিশ্ব শান্তি রক্ষায় এক অনন্য নাম : রাষ্ট্রপতি রাত ২টা পর্যন্ত নিজেই দুর্যোগ মনিটর করেছেন প্রধানমন্ত্রী রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ দ্রুত মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর বৃহস্পতিবার পটুয়াখালী যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যাবেন শেখ হাসিনা ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার অগ্রযাত্রায় মার্কিন ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক ডকুমেন্টারি ‘কলকাতায় মুজিব’ অবলোকন ঢাকাবাসীকে সুন্দর জীবন উপহার দিতে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড় রেমাল : ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারি ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা নয়: প্রধানমন্ত্রী

শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ সরকার

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৯ এপ্রিল ২০২৪  

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। সরকার শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।’

গতকাল সোমবার (৮ এপ্রিল) ঢাকার উত্তরায় বিজিএমইএ কমপ্লেক্সের নুরুল কাদের অডিটরিয়ামে আহত, অসুস্থ শ্রমিক ও শ্রমিকদের পরিবারের চিকিৎসা এবং তাদের মেধাবী সন্তানদের উচ্চ শিক্ষার জন্য আর্থিক সহায়তর চেক হন্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ‘কেন্দ্রীয় তহবিল’ থেকে শতভাগ রপ্তানিমুখী শিল্পে নিয়োজিত শ্রমিকরা কারখানায় কর্মরত থাকাকালীন দুর্ঘটনা ও স্বাভাবিক মৃত্যুজনিত ক্ষতিপূরণ, অসুস্থ শ্রমিককে চিকিৎসা সহায়তা, তাদের মেধাবী সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান, প্রয়োজনে বন্ধ কারখানার শ্রমিকদের বকেয়া বেতন-ভাতাদি পরিশোধ এবং অগ্নিদুর্ঘটনায় আহত শ্রমিকদের কল্যাণে এ পর্যন্ত ২৫৫ কোটি ১৪ লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। উপকারভোগী এ শ্রমিকদের সংখ্যা ৩২ হাজার ৬৮৬ জন।’

তিনি আরও বলেন, ‘কর্মক্ষেত্রে অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনার শিকার হয় স্থায়ীভাবে অক্ষম হওয়া বা মৃত্যুবরণকারী শ্রমিক বা তাদের উপযুক্ত উত্তরাধিকারী বা পোষ্যকে পেনশন সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে ২০২২ সালের জুন মাসে চালু হয়েছ ‘এমপ্লয়মেন্ট ইনজুরি স্কিম’।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মাহবুব হোসেন এবং বিকেএমইএ এর নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম। এছাড়া কেন্দ্রীয় তহবিলের মহাপরিচালক ড. মোল্লা জালাল উদ্দিন এনডিসি, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং বিজিএমইএ’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও বক্তৃতা করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন বিজিএমইএ’র সভাপতি এস এম মান্নান (কচি)।