• শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • চৈত্র ৩০ ১৪৩০

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা

কান্না থামাতে মুখ চেপে ধরলে মারা যায় শিশু নুসরাত

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

নড়াইলে তিন বছরের শিশু নুসরাত জাহান রোজাকে হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন তার সৎ মা জোবাইদা বেগম (২৫)। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হেলাল উদ্দিনের আদালতে এ জবানবন্দি দেন অভিযুক্ত জোবাইদা।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর দাদা আবুল খায়ের কাজী মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাতেই বাদী হয়ে শিশুটির সৎ মা জোবাইদা বেগমকে একমাত্র আসামি করে লোহাগড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার পরিপ্রেক্ষিতে লোহাগড়া থানা পুলিশ জোবাইদাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করেন। জিজ্ঞাসাবাদে শিশু নুসরাত হত্যায় নিজের দায় স্বীকার করেন তিনি।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) তারেক আল মেহেদী এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, লোহাগড়া উপজেলার গিলাতলা গ্রামে মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে হত্যা করা হয় শিশু নুসরাতকে। ঘটনার পরই নুসরাতের বাবা সজীব কাজী ও সৎ মাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানা হেফাজতে নেয় পুলিশ।

তিনি আরও বলেন, ২০১৬ সালে ইজিবাইকচালক সজীব কাজী বিয়ে করেন, সে ঘরে ছেলে ইয়াসিনের জন্মের দুই বছর পর মেয়ে নুসরাতের জন্ম হয়। ২০১৯ সালে তাদের বিচ্ছেদের পর থেকে ইয়াসিন ও দুই মাস বয়সী নুসরাতের আশ্রয় হয় দাদা-দাদির কাছে। ২০২১ সালের শেষের দিকে মায়ের অভাব পূরণ করতে সজীব কাজী তার আপন ফুফাতো বোন জোবাইদাকে বিয়ে করেন।

ঘটনার দিন গত মঙ্গলবার ভাই-বোন মারামারি করে। এতে নুসরাত কান্নাকাটি শুরু করলে তার কান্না থামাতেই মুখ চেপে ধরেন সৎ মা। এতে শ্বাস বন্ধ হয়ে শিশুটির মৃত্যু হয়। দায় এড়াতে মরদেহ লেপের নিচে রেখে স্বাভাবিক আচরণ করেন বলে স্বীকার করেছেন জোবাইদা।