• শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১০ ১৪৩০

  • || ১২ শা'বান ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখেই সামুদ্রিক সম্পদ আহরণের আহ্বান সমুদ্রসীমার সম্পদ আহরণ করে কাজে লাগানোর তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর ২১ বছর সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: শেখ হাসিনা হঠাৎ টাকার মালিক হওয়ারা মনে করে ইংরেজিতে কথা বললেই স্মার্টনেস ভাষা আন্দোলন দমাতে বঙ্গবন্ধুকে কারান্তরীণ রাখা হয় : সজীব ওয়াজেদ ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই বাংলাদেশের মানুষ স্বাধিকার পেয়েছে অশিক্ষার অন্ধকারে কেউ থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী একুশ মাথা নত না করতে শেখায়: প্রধানমন্ত্রী একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

‘মায়ের মতো ব্রিটেন ও কমনওয়েলথের জনগণের সেবা করবো’

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২  

মা রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অঙ্গীকার নবায়নের কথা বলেছেন নতুন রাজা তৃতীয় চার্লস ফিলিপ আর্থার জর্জ। তিনি বলেন, ‘পুরো রাজপরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শোকের অনুভূতি নিয়ে আমি কথা বলছি। মা যে অঙ্গীকার করেছিলেন- সেই একই অঙ্গীকার আমি নবায়ন করতে চাই। রাজত্বের সূচনায় ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ যে অঙ্গীকার করেছিলেন সে অনুযায়ী সম্মান, মর্যাদা এবং ভালোবাসার সঙ্গে ব্রিটেন ও কমনওয়েলথের জনগণের সেবা করবো।’

শুক্রবার ( ৯ সেপ্টেম্বর)  জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।  তার এ ভাষণ সরাসরি টিভিতে সম্প্রচারিত হয়।

৭৩ বছর বয়সী রাজা চার্লস আরও বলেন, ‘রানি এলিজাবেথের মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। আমার প্রিয় মা, আপনি শেষ যাত্রা শুরু করেছেন। এ অবস্থায় আমি কেবল বলতে চাই- আপনাকে ধন্যবাদ।’

তিনি আরও বলেন, ‘রানি নিজে যেমন নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন, ঈশ্বর আমাকে যতটুক সময় দিয়েছেন আমিও এই সময়ে সাংবিধানিক নীতিগুলোকে সমুন্নত রাখার জন্য কাজ করে যাবো।’

প্রসঙ্গত, সত্তর বছর সিংহাসনে থাকার পর রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ বৃহস্পতিবার ৯৬ বছর বয়সে স্কটল্যান্ডের বালমোরাল দুর্গে মারা যান। ১৯৫২ সালে সিংহাসনে আরোহণের পর তিনি বিরাট সব সামাজিক পরিবর্তনের সাক্ষী হয়েছেন। বাকিংহাম প্রাসাদসহ রাজকীয় বিভিন্ন বাসভবনের সামনে শুক্রবার সারাদিন অসংখ্য মানুষ ফুল দিয়ে প্রয়াত রানির জন্য শোক ও শ্রদ্ধা প্রকাশ করেন। গির্জাগুলোতে ঘণ্টাধ্বনির পাশাপাশি বিভিন্ন শহরে তোপধ্বনি করা হয়।

এদিকে রানির ছেলে রাজা তৃতীয় চার্লসের সিংহাসনে অধিষ্ঠিত হওয়ার মধ্য দিয়ে এখন ব্রিটিশ ইতিহাসের এক নতুন যুগের সূচনা হচ্ছে।