• রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীকে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প শোনালেন সুবিধাভাগীরা

রাশিয়ায় অনুপ্রবেশ করা ৭০ হামলাকারীকে হত্যার দাবি মস্কোর

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৪ মে ২০২৩  

রাশিয়া দাবি করেছে ইউক্রেনের সীমান্তবর্তী অঞ্চল বেলেগরদে অনুপ্রবেশকারী হামলাকারীদের মধ্যে অন্তত ৭০ জনকে হত্যা করা হয়েছে। বাকীদের সীমান্তের ওপারে ইউক্রেনের অঞ্চলে তাড়িয়ে দেয়া হয়েছে বলেও দাবি করেছে দেশটি।
কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, সীমান্ত এলাকায় রুশ গোলন্দাজ এবং বিমানবাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে রাশিয়ার সশস্ত্রবাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘সন্ত্রাসবাদবিরোধী অভিযান পরিচালনার সময় জাতীয়তাবাদী গোষ্ঠীগুলোর সদস্যদের ঠেকিয়ে দেয়া হয়েছে এবং বিমান ও গোলা হামলায় তাদের ধ্বংস করা হয়েছে।’ তারা অনুপ্রবেশকারী হামলাকারীদের ইউক্রেনীয় বাহিনীর অন্তর্ঘাতী এবং অগ্রবর্তী দল বলে অভিহিত করেছে।
 
রাশিয়ার সশস্ত্রবাহিনীর বরাত দিয়ে দেশটির বার্তা সংস্থা রিয়া নাভোস্তি বুধবার (২৪ মে) বলেছে, ‘সবমিলিয়ে ৭০ জনেরও বেশি জঙ্গি নিহত হয়েছে এবং চারটি সাঁজোয়া যান এবং পাঁচটি পিকআপ ধ্বংস করা হয়েছে। আজ (বুধবার) বেলেগরদ অঞ্চলে সন্ত্রাসবাদবিরোধী অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।’
 
স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কোজিনকা অনুপ্রবেশকারীদের হামলায় ১ জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া বিভিন্ন জায়গায় তাদের হামলায় আরও ১৩ জন আহত হয়েছেন। কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছে, সবমিলিয়ে সীমান্তবর্তী ৯টি গ্রামের লোকজনকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।  
 
এদিকে, ২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেনে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ শুরুর পর রাশিয়ার ভূখণ্ডে এটিই বড় ধরনের হামলা। এর আগে, এমন কোনো হামলার মুখোমুখি হয়নি দেশটি। এ বিষয়ে ক্রেমলিন গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।
 
ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, ইউক্রেন থেকে কোনো ধরনের অনুপ্রবেশের ব্যাপারে রাশিয়াকে সতর্ক থাকতে হবে। এ সময় তিনি সবাই সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘আমাদের আরও প্রচেষ্টা দরকার যাতে এমন ঘটনা আর না ঘটতে পারে।’