• রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীকে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প শোনালেন সুবিধাভাগীরা

শিশুর চোখ ভালো রাখবে যে ৫ খাবার

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

বর্তমানে অনেক শিশুই চোখের সমস্যা দেখা যাচ্ছে। স্কুলগামী অনেক শিশুর চোখেই দেখতে পাবেন মোটা ফ্রেমের চশমা। এটি মোটেই সুখকর কোনো বার্তা নয়। যে সমস্যা বয়সজনিত কারণে হওয়ার কথা, শৈশবেই সেই সমস্যায় ভুগলে বাকি জীবনও সংগ্রাম করে যেতে হবে। শিশুর চোখ ভালো রাখতে সচেতন হতে হবে মা-বাবাকেই। সেজন্য তার পাতে রাখতে হবে এমন সব খাবার যেগুলো চোখের জন্য উপকারী। চলুন জেনে নেওয়া যাক শিশুর চোখ ভালো রাখতে কোন ৫ খাবার নিয়মিত খাওয়াবেন-

দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার

​দুধে থাকে প্রচুর ভিটামিন এ। এই ভিটামিন চোখের জন্য উপকারী। তাই সন্তানকে প্রতিদিন এক গ্লাস দুধ খেতে দেবেন। শিশুর যদি সরাসরি দুধ খেলে অ্যালার্জির সমস্যা হয় তাহলে তাকে দই, পনির, ছানা খেতে দিতে পারেন। এ ধরনের খাবারে তার সমস্যা হবে না। পুষ্টি পাবে যথেষ্ট।

 

ফল ও শাক-সবজি

শিশুকে ফল ও শাক-সবজি নিয়মিত খেতে দিন। এ ধরনের খাবারে থাকে ভিটামিন ও উপকারী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। শিশুর চোখের দৃষ্টি ভালো রাখার জন্য কাজ করে এ জাতীয় খাবার। অনেক শিশু ফল কিংবা শাক-সবজি খেতে চায় না। তাদের একই খাবার প্রতিদিন দেওয়া যাবে না। ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দিলে এবং রেসিপিতে ভিন্নতা আনলে শিশু পছন্দ করে খাবে।

আমন্ড​

অন্যতম উপকারী বাদাম হলে আমন্ড। বাংলায় একে কাঠবাদামও বলা হয়। এই বাদামে থাকে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড যা দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে কাজ করে। সেইসঙ্গে এই বাদামে থাকে প্রচুর ভিটামিন ই। এটি চোখের জন্য ভীষণ উপকারী। চোখের নানা ধরনের সমস্যা দূর হবে নিয়মিত এই বাদাম খেলে। তাই শিশুকে প্রতিদিন অন্তত ৪-৫টি আমন্ড খেতে দিন।

 

মাছ

অনেক শিশু মাছ খেতে চায় না। তাদেরও মাছ খাওয়ার প্রতি আগ্রহী করতে হবে। কারণ নিয়মিত মাছ খেলে শরীরের প্রোটিনের ঘাটতি পূরণ হয়। পাশাপাশি মাছে থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড চোখ ভালো রাখতে দারুণ কার্যকরী। তাই শিশুকে নিয়মিত মাছ খেতে দিতে হবে। বিভিন্ন ধরনের ছোট মাছ, সামুদ্রিক মাছ এক্ষেত্রে বিশেষ উপকারী।

ডিম​

শিশুর চোখ ভালো রাখার জন্য আরেকটি খাবার তাকে নিয়মিত খেতে দেবেন, সেটি হলো ডিম। এর কুসুমে থাকে প্রচুর লিউটিন। এটি চোখ ভালো রাখার কাজে অত্যন্ত কার্যকরী। ডিমের পাশাপাশি ডিম দিয়ে তৈরি বিভিন্ন খাবারও তাকে খেতে দিন। এতে চোখ তো ভালো থাকবেই, সেইসঙ্গে শিশুর শরীরেও পর্যাপ্ত পুষ্টি পৌঁছাবে।