• শনিবার ০২ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৮ ১৪৩০

  • || ২০ শা'বান ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
বেইলি রোডে অগ্নিকান্ড কবলিত ভবনে ফায়ার এক্সিট না থাকায় হতাশ নতুন নতুন অপরাধ দমনে পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে থাকবে পুলিশকে জনগণের বন্ধু হয়ে নিঃস্বার্থ সেবা দেয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতি বিশ্বের সম্ভাব্য সকল স্থানে রপ্তানি বাজার ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জরুরি গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে

টেলিভিশন দেখানোর কথা বলে ছাদে নিয়ে শিশুকে ধর্ষণ

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৩ জানুয়ারি ২০২৪  

টেলিভিশন দেখানোর কথা বলে ছাদে নিয়ে এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে নাহিদ হাওলাদার (২০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। সোমবার (১ জানুয়ারি) রাতে শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের মাছুয়াখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার অসুস্থ অবস্থায় ওই শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  

অভিযুক্ত নাহিদ হাওলাদার গোসাইরহাট উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের মাছুয়াখালী গ্রামের জসীম হাওলাদারের ছেলে।

ভুক্তভোগীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নাহিদ হাওলাদার নির্যাতনের শিকার ওই শিশুর প্রতিবেশী। সোমবার সন্ধ্যায় শিশুটির মাকে পিঠা বানানোর জন্য ডেকে নিয়ে যায় নাহিদ হাওলাদারের মা। পরে শিশুটির মা তাকে নিয়ে পিঠা বানাতে নাহিদদের বাড়িতে যায়। শিশুটির মা যখন পিঠা বানাচ্ছিলেন, তখন শিশুটিকে টেলিভিশন দেখানোর কথা বলে দ্বিতীয় তলায় ডেকে নিয়ে যায় নাহিদ। পরে ওই শিশুটিকে ছাদে নিয়ে গিয়ে ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

এদিকে দীর্ঘ সময় শিশুটিকে দেখতে না পেয়ে ডাকাডাকি করতে থাকে তার মা। পরে ছাদে গিয়ে শিশুটিকে অসুস্থ অবস্থায় পেলে শিশুটি তার মাকে বিষয়টি খুলে বলে। এক পর্যায়ে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে মঙ্গলবার সকালে প্র‍থমে গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। এদিকে অভিযুক্তের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় ঘটনার পর থেকেই হুমকি-ধামকি দিয়ে বিষয়টি গোপন রাখার চেষ্টা করছে।

ভুক্তভোগীর মা অভিযোগ করে বলেন, আমি নাহিদের মাকে বিষয়টি জানালে তিনি লোকলজ্জার দোহাই দিয়ে আমাকে চুপ থাকতে বলেন। পরে আমার মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে নিয়ে আসি। তাদের অনেক টাকা পয়সা থাকায় ঘটনা ধামাচাপা দিতে হুমকি দিচ্ছে। আমার মেয়েটি খুব অসুস্থ হয়ে পড়েছে। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

জানতে চাইলে সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক রোকসানা বিনতে আকবর বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে ৬ বছর বয়সী এক শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে দিয়েছি। ফলাফল আসলে বাকিটা বলা যাবে।

এ বিষয়ে গোসাইরহাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুষ্পেন দেবনাথ বলেন, আমরা এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি। বিষয়টির খোঁজ খবর নেওয়া হবে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।