• বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৬ ১৪৩০

  • || ১৮ শা'বান ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে থাকবে পুলিশকে জনগণের বন্ধু হয়ে নিঃস্বার্থ সেবা দেয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতি বিশ্বের সম্ভাব্য সকল স্থানে রপ্তানি বাজার ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জরুরি গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে পুলিশ সপ্তাহ শুরু, উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে পুলিশ নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে

জাজিরায় সরিষার আবাদের লক্ষমাত্রা অতিক্রম

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২০ ডিসেম্বর ২০২২  

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ সরকারি সহায়তা ও উপজেলা কৃষি বিভাগের আন্তরিক প্রচেষ্টায় লক্ষমাত্রা ছারিয়ে জাজিরা উপজেলায়  ৩ হাজার ৬৫০ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে। যা লক্ষমাত্রার চেয়ে ১ হাজার ১২০ হেক্টর অধিক জমি।  
 উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানাগেছে,সরকার দেশের তেলের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষে তেল জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প, রাজস্ব কর্মসূচি ও এনএটিপি২ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রদর্শনী স্থাপন সহ উদ্বুদ্ধ করণে কারনে  শরীয়তপুর জেলার জাজিরা উপজেলায় সরিষার আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে। চলতি বছরের জাজিরা উপজেলায় সরিষা আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ২৫৩০ হেক্টর জমি। সরকারের প্রনোদনাও উপজেলা কৃষি বিভাগের তৎপরতায় জাজিরাতে চলতি বছরে ৩৬৫০ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে। লক্ষমাত্রার চেয়ে ১ হাজার ১২০ হেক্টর অধিক জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে।
উন্নত মানের উফশী জাতের সরিষার জাত সম্প্রসারণের কারনে এই আবাদ বৃদ্ধি সম্ভব হয়েছে বলে উপজেলা কৃষি অফিসারের কার্যালয় সুত্রে  জানা যায়, এবছর জাজিরাতে আবাদকৃত সরিষার জাতের মধ্যে রয়েছে, বারিসরিষা১৮,  বারিসরিষা১৪, বারিসরিষা১৭,  বিনা সরিষা ৪ এবং ৯ জাতের সরিষার   আবাদ করা হয়েছে।  এছাড়াও স্থানীয় মাসী, ও টরি৭ জাতের সরিষার  আবাদ করা হয়েছে।   জাজিরা উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ জামাল হোসেন বলেন,  দেশে ভোজ্য তেলের উৎপাদন বৃদ্ধি সরকারের মহাপরিকল্পনার একটি অংশবিশেষ যেখানে ব্লক ভিত্তিক সরিষা সহ অন্যান্য তেল জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি করতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি যার ফলশ্রুতিতেই প্রণোদনা কর্মসূচি, তেল জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প, রাজস্ব কর্মসূচি ও এনএটিপি২ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রদর্শনী স্থাপন সহ উদ্বুদ্ধ করণে কারনে সরিষার আবাদ বৃদ্ধি করার কাজ করে যাচ্ছি।   আশাবাদী আমাদের এই প্রচেষ্টা  অব্যাহত থাকবে যাতে করে ২০২৩ সালের মধ্যে জাজিরাতে আমাদের লক্ষ্য ৪৬৫০ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদে উন্নতি করা।
আন্তর্জাতিক বাজারে সয়াবিনসহ ভোজ্যতেলের মূল্য বৃদ্ধির রেশ দেশের অভ্যন্তরীণ বাজারেও পড়ায় সাধারণ মানুষকে যেমনি চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে, তেমনি বাড়তি মূল্য পরিশোধে বৈদেশিক মুদ্রার মজুদের ওপরও চাপ বাড়ছে। এ অবস্থায় সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে সরিষা, বাদাম ও সূর্যমুখী তেলবীজ উৎপাদন বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। সরকারে কাঙ্খিত লক্ষ পুরণে আমরা মাঠ পর্যায় কাজ করে যাচ্ছি।