• শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪৩১

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীকে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প শোনালেন সুবিধাভাগীরা

কৃষকের হাতে সহজে ঋণ পৌছে দিতে নড়িয়ায় মেলা

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি    মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ইঞ্চি অনাবাদি জমি আবাদের আওয়তায় আনার নির্দেশনাকে বাস্তবায়ন করতে “ঋণের জন্য কৃষক ব্যাংকে নয়, ব্যাংকই কৃষকের দ্বারে” এই প্রত্যয়ে শরীয়তপুর জেলা প্রশানের সমন্বিত কৃষি কর্ম—পরিকল্পনার আওয়তায় কৃষকদের হাতে অল্প সময়ে ঝামেলামুক্ত কৃষি লোন পৌছে দিতে নড়িয়ায় কৃষি ঋণ মেলা করেছে।
উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে আজ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা শহীদ মিনার চত্ত্বরে জেলা প্রশাসক মো: পারভেজ হাসান দিনব্যাপী এই মেলার উদ্বোধন করেন। নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ রাশেদউজ্জামান এর সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. রবীআহ নুর আহমেদ, নড়িয়া পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা মো: পারভেজ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: রোকনুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন প্রমুখ।
এ সময় ১৫টি ব্যাংক ও ৫টি উন্নয়ন সংস্থার মাধ্যমে ৭০ জন কৃষককে সাত কোটি ৭ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা ঋণ প্রদান করা হয়।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো: পারভেজ হাসান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ইঞ্চি অনাবাদি জমি আবাদে আনার নির্দেশনাকে বাস্তবায়ন করতে ইতিমধ্যে আমরা সমন্বিত কৃষি কর্ম—পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। এর আওতায় কৃষকের হাতে সহজে কৃষি ঋণ পৌছে দিতে কৃষি মেলার মাধ্যমে ইতিমধ্যে জাজিরা উপজেলায় ৫০ জন কৃষককে ও নড়িয়ার ৭০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষককে স্বল্প সুদে ঋণ প্রদান করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বাকি ৪টি উপজেলায়ও কৃষি ঋণ মেলার আয়োজন করা হবে। আমরা বিশ্বাস করি “ঋণের জন্য কৃষক ব্যাংকে নয়, ব্যাংকই কৃষকের দ্বারে যাবে ” এই পদ্ধতিতে অল্প সময়ে ঝামেলামুক্ত ঋণের ব্যবস্থা নিশ্চিত করা গেলে সেই দিন খুব বেশি দূরে নয়, দেশের এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি থাকবে না। আর আমরা সেই লক্ষকে সামনে রেখেই সকল দপ্তরের সমন্বয়ে এগিয়ে যাচ্ছি।