• শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪৩১

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীকে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প শোনালেন সুবিধাভাগীরা

আগৈলঝাড়ায় কোটি টাকা ব্যয়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্মাণ

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ৬ জুন ২০২৩  

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় এক কোটি টাকা ব্যয়ে রাজিহার ইউনিয়ন পরিষদের নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায় রয়েছে। নির্মাণ কাজের ৯৮ ভাগ শেষ হয়েছে। বাকী ২ ভাগ কাজ দ্রুত শেষ হবে বলে জানান ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। উপজেলা এলজিইডি বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, উপজেলা এলজিইডি বিভাগ থেকে রাজিহার ইউনিয়ন পরিষদের নির্মাণ কাজ ৯৮লক্ষ টাকা ব্যয়ে শেষ পর্যায় রয়েছে। বাকী কাজ শেষ করে দ্রুত উদ্বোধন করা হবে।

পরিষদ সুত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে ৯৮লক্ষ টাকা ব্যয়ে উপজেলা এলজিইডি বিভাগ থেকে টেন্ডার আহবান করলে একটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজটি পায়। তারা কাজ পেয়ে ২০২১ সালে মার্চ মাসে নির্মাণ কাজ শুরু করে সম্প্রতি ইউনিয়ন পরিষদের নির্মাণ কাজ ৯৮ ভাগ শেষ করেন। ২ ভাগ কাজ দ্রুত শেষ করে পার্বত্য শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন পরীবিক্ষন কমিটির আহবায়ক (মন্ত্রী) আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ(এমপি) দিয়ে উদ্বোধন করাবেন।

আজ মঙ্গলবার সকালে গিয়ে দেখা গেছে সাইক্লোন সেন্টারের আদলে এই ইউনিয়ন পরিষদ নির্মাণ করা হয়েছে। ভবনের নির্মাণ কাজ ৯৮ ভাগ শেষ হয়েছে। বাকী ২ ভাগ কাজ দ্রুত শেষ করে প্রতিষ্ঠানটি উদ্বোধন করা হবে বলে জানান ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান।

রাজিহার ইউনিয়ন পরিষদের সচিব গৌতম দাস বলেন, আমাদের জরাজীর্ন ভবনে বসে কাজ করতে হচ্ছে। লোকজন আসলে তাদের বসতে দিতে পারিনা। কাজ কর্ম করতে আমাদের সমস্যায় পরতে হচ্ছে।

এব্যাপারে উপজেলা এলজিইডি বিভাগের প্রকৌশলী রবীন্দ্র নাথ বলেন, কাজের মান খুব ভাল হয়েছে। সার্বক্ষনিক কাজের মান দেখার জন্য আমাদের বিভাগ থেকে একজন উপ-সহকারী প্রকৌশলী ছিলেন। কাজের প্রায় ৯৮ ভাগ শেষ হয়েছে, বাকী ২ভাগ কাজ শেষ দ্রুত শে করে উদ্বোধন করা হবে। পরিষদের নতুন ভবন চালু হলে ওই ইউনিয়নের সাধারন লোকজন সুফল পাবেন।