• বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৬ ১৪৩০

  • || ১৮ শা'বান ১৪৪৫

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে থাকবে পুলিশকে জনগণের বন্ধু হয়ে নিঃস্বার্থ সেবা দেয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতি বিশ্বের সম্ভাব্য সকল স্থানে রপ্তানি বাজার ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জরুরি গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে পুলিশ সপ্তাহ শুরু, উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে পুলিশ নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে

যে ১০ সাহাবি দুনিয়াতেই জান্নাতের সুসংবাদ পেয়েছিলেন

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১ মার্চ ২০২৩  

পরপারে জান্নাত কে পাবেন- এ কথা বলা কঠিন। ছোট্ট একটি খারাপ আমলের কারণে অনেকের সব নেক কাজ বরবাদ হতে পারে। আবার ছোট্ট একটি আমল তাকে জান্নাতে নিয়ে যেতে পারে।
কে জান্নাতে যাবে তা সরাসরি না বলা গেলেও হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর সান্নিধ্যপ্রাপ্ত ১০ জন সাহাবি ছিলেন, যারা দুনিয়াতেই জান্নাতের সুসংবাদ পেয়েছেন। তাদের বলা হয় আশারায়ে মুবাশশারা, অথার্ৎ ১০ সুসংবাদপ্রাপ্ত।

হজরত সাঈদ ইবনে যায়িদ (রা.) বর্ণনা করেন,  আমি সাক্ষ দিচ্ছি যে আল্লাহর রাসুলকে (সা.) বলতে শুনেছি যে, দশজন লোক জান্নাতে যাবে। আবু বকর জান্নাতি, উমর জান্নাতি, উসমান জান্নাতি, আলী জান্নাতি, তালহা জান্নাতি, জুবাইর ইবনুল আওয়াম জান্নাতি, আবদুর রহমান ইবনে আউফ জান্নাতি, সাদ ইবনে আবি ওয়াক্কাস জান্নাতি এবং আবু উবাইদা ইবনুল জাররাহ জান্নাতি। আমি কি দশম ব্যক্তির নাম বলব? সাহাবিরা বললেন, কে তিনি? তিনি নীরব থাকলেন। সাহাবিরা আবার বললেন, কে তিনি? তখন তিনি বললেন, তিনি হলেন সাঈদ ইবনে যায়িদ। (সুনান আবু দাউদ)

আশারায়ে মুবাশশারা, অথার্ৎ সুসংবাদপ্রাপ্ত সেই ১০ সাহাবি হলেন-

১. হজরত আবু বকর সিদ্দীক (রা.)। ২. হজরত উমার বিন খাত্তাব (রা.)। ৩. হজরত উসমান বিন আফফান (রা.)। ৪. হজরত আলী বিন আবি তালিব (রা.)। ৫. হজরত আবু উবাইদাহ বিন জাররাহ (রা.)। ৬. হজরত সা’দ বিন আবি ওয়াক্কাস (রা.)। ৭. হজরত আবদুর রহমান বিন আওফ (রা.)। ৮. হজরত যুবাইর বিন আওম (রা.)। ৯. হজরত তালহা বিন উবায়দুল্লাহ (রা.) ও ১০. হজরত সাঈদ বিন যায়দ (রা.)।