• সোমবার   ১৬ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৯

  • || ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা

শরীয়তপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে জেলা কমিটির সভা

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৩ এপ্রিল ২০২২  

শরীয়তপুর প্রতিনিধি :

“সঠিক পুষ্টিতে সুস্থ জীবন” এ প্রতিপাদ্য নিয়ে  শুরু হয়েছে পুষ্টি সপ্তাহ ২০২২। জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে শরীয়তপুরে জেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির সভা সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার জেলা সমন্বয় কমিটি সদস্য সচিব সিভিল সার্জন ডাঃ এস এম আবদুল্লাহ আল মুরাদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ আবদুস সোবাহান, জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ এমারত হোসেন। জেলা সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবার রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখে জেলা তথ্য অফিসার মোঃ মনিরুল ইসলাম, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক আব্দুর রাজ্জাক রনি এসডিএসের সহকারি পরিচালক অমলা দাস।

জেলা সমন্বয় কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে সিভিল সার্জন ডাঃ এস এম আবদুল্লাহ আল মুরাদ বলেন, এবার পুষ্টি সপ্তাহের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করছেন ‘হেলদি লাইফ উইথ প্রোপার নিউট্রেশন অর্থাৎ সঠিক পুষ্টিতে সুস্থ্য জীবন।’ ২৩ এপ্রিল শনিবার শুরু হয়ে পুষ্টি সপ্তাহ ২৯ এপ্রিল শেষ হবে।

জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ সফলভাবে বাস্তবায়ন, পুষ্টি সপ্তাহের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে মানুষের কাছে তুলে ধরা হবে। এ জন্য ২৩ এপ্রিল শনিবার  জেলার বিভিন্ন পয়েন্ট আলোকসজ্জা, সচেতনতামূলক ব্যানার, ফেস্টুন টাঙ্গানো ও গণমাধ্যমে প্রচার-প্রচারণা চালানো হবে।

পুষ্টি সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষ্যে ২৪ এপ্রিল রোববার সিভির সার্জনের সম্মেলন কক্ষে কিশোর কিশোরীদের পুষ্টি সচেতনতা সভা করা হবে। ২৫ এপ্রিল সোমবার একই স্থানে নিউট্রেশন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্টিত হবে। ২৬ এপ্রিল অসচ্ছল পরিবারের মাঝে পুষ্টি সম্পন্ন খাদ্য বিতরণ করা হবে। । ২৭ এপ্রিল জেলা ব্যাপি পুষ্টি সচেতনতা বিষয়ক ব্যাপক প্রচার প্রচারণা করা হবে।

২৮ এপ্রিল বিভিন্ন শিশু পরিবার ও এতিমখানায়  ইফতার বিতরণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, দেশে দারিদ্র্যতা কমলে পুষ্টিহীনতা কমবে। নারীর ক্ষমতায়ন করলে শিশুরা পুষ্টিহীনতায় ভুগবে না। পুষ্টিহীনতায় ভুগলে শিশুর নানা ধরনের অসুখ-বিসুখ হয়ে থাকে। পুষ্টি সপ্তাহে সবার প্রতি আহ্বান শাক-সবজি, ফলমূলসহ সুষম খাবার খেতে হবে। তেল, চিনি, লবণ কম খেতে হবে। সঠিক পুষ্টির জন্য শিশুর জন্মের এক ঘন্টার মধ্যে শাল দুধ মায়ের শালদুধ খাওয়াতে হবে। ছয়মাস পর্যন্ত বুকের দুধ এবং ছয়মাসের পর থেকে ২ বছর পর্যন্ত মায়ের দুধের পাশাপাশি ঘরে তৈরি সুষম খাদ্য দিতে হবে। কিশোর-কিশোরীদের পুষ্টিকর খাবারে উৎসাহিত করতে হবে। গর্ভবতী ও প্রসুতিদের স্বাভাবিক খবারের পাশাপাশি বাড়তি খাবারে নজর দিতে হবে।