• শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৮

  • || ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

শরীয়তপুর বার্তা

দেশেই তৈরি হবে ট্রেনের বগি!

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২৪ অক্টোবর ২০২১  

বিদেশ থেকে আমদানি নয়, দেশেই ট্রেনের যাত্রীবাহী কোচ উৎপাদনের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। সৈয়দপুরে হবে কারখানা। প্রকল্পে আর্থিক সহায়তা দেবে ভারত।
দেশেই তৈরি হবে ট্রেনের বগি!

১৯৬৫-৬৬ অর্থবছরে য়ৈয়দপুর রেল কারখানায় শুরু হয় ট্রেনের যাত্রীবাহী কোচের উৎপাদন। চাহিদার শতভাগ পূরণের সক্ষমতা না থাকলেও কিছুটা অভাব পূরণ হতো সেখান থেকে। ১৯৯২ সালে বন্ধ হয়ে যায় কারখানায় উৎপাদন।

তখন থেকে কোচের জন্য পুরোপুরি বিদেশনির্ভর হয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ভারত, চীন, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, জার্মানি ও কোরিয়া থেকে শ্রেণিভেদে ৫ থেকে ৮ কোটি টাকা দরে প্রতিটি কোচ আমদানি করে আসছে রেলওয়ে। এ অবস্থায় পুনরায় দেশে যাত্রীবাহী কোচ উৎপাদনের প্রকল্প নিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন জানালেন, সৈয়দপুরে হবে কারখানা। ভারতের আর্থিক সহায়তায় ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে প্রাথমিক সমীক্ষা যাচাইয়ের কাজ। আগামী বছর চূড়ান্তভাবে কাজ শুরুর পরিকল্পনা তাদের।

সুজন বলেন, সৈয়দপুরে নতুন করে বগি উৎপাদনের কারখানা স্থাপনের জন্য ইতোমধ্যেই ভারতের সঙ্গে চুক্তি করেছি। সামনের বছর চূড়ান্ত কাজ শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে রেল কর্মকর্তারা বলছেন, অল্প সময়ের মধ্যে সম্পন্ন হবে বিদেশি পরামর্শক নিয়োগ ও কারখানার নকশার কাজ।

বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (রোলিং স্টক) মঞ্জুর-উল-আলম চৌধুরী বলেন, সম্ভাব্যতা যাচাই হয়ে গেলে পরামর্শক নিয়োগ দেওয়া হবে। এরপর একটা আধুনিক কারখানা তৈরির দিকে এগিয়ে যাব। এর জন্য বেশি সময় নেব না। কাজটি দ্রুত সময়ে শেষ করব। রেল কর্মকর্তারা বলছেন, দেশের চাহিদাই নয়, বিদেশেও কোচ রপ্তানির চিন্তা মাথায় রেখে এগোচ্ছে কাজ।

রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক বললেন, বাংলাদেশ রেলওয়ে ভবিষ্যতে নিজ প্রয়োজনে রপ্তানি করার মতো ক্ষমতা অর্জন করতে পারে। আর মন্ত্রী বললেন, রেলকেও আমরা আত্মনির্ভরশীল করতে চাই। বর্তমানে ৪৫০টি যাত্রীবাহী কোচ কেনার প্রকল্প রয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।