• বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী আইসিওয়াইএফ থেকে পাওয়া সম্মাননা প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা বাংলাদেশ যেন দুর্ভিক্ষের কবলে না পড়ে: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত-দুর্যোগে নারীদের দুর্দশা বহুগুণ বাড়ে: প্রধানমন্ত্রী

কী পরিমাণের বেশি লবণ খেলেই রক্তচাপ থেকে স্ট্রেস বাড়তে পারে?

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০২২  

লবণ স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, এটা আমরা সকলেই জানি। অতিরিক্ত লবণ খেলে আমাদের স্বাস্থ্যে ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে। তাই রোজকার খাবারের তালিকায় কতটা পরিমাণে লবণ রাখা দরকার, সে সম্পর্কে পরামর্শ নেওয়া দরকার বিশেষজ্ঞ থেকে চিকিৎসকের। বিশেষজ্ঞরা জানান, অত্যধিক লবণ খাওয়ার ফলে স্বাস্থ্যের উপর মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে। রক্তচাপ বেড়ে যাওয়া থেকে আরও নানা সমস্যা দেখা দেয়। কিন্তু জানেন কি, কতটা পরিমাণের বেশি লবণ খেলেই আমাদের রক্তচাপ বেড়ে যাওয়ার এবং স্ট্রেস দেখা দেওয়ার সমস্যা দেখা দেয়?

কতটা পরিমাণের বেশি লবণ অস্বাস্থ্যকর?

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, সুস্থ থাকতে, লবণ খেতে হবে নিয়ম মেনে। কারণ, প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় যদি লবণ বেশি মাত্রায়  খাওয়া হয়ে থাকে, তাহলে তা হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

চিকিৎসকদের মতে, একজন প্রাপ্ত বযস্ক মানুষের সারাদিনে ৬ গ্রামের কম লবণ খাওয়া উচিত। তবেই সুস্থ থাকবে শরীর। ৬ গ্রামের বেশি লবণ খেলে বেড়ে যেতে পারে রক্তচাপ। আর উচ্চ রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয় হৃদরোগের ঝুঁকি। যা থেকে হতে পারে হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোকের মতো সমস্যা। 

শুধু হৃদরোগই নয়, ৬ গ্রামের বেশি লবণ খেলে দেখা দিতে পারে স্ট্রেসের মতো সমস্যাও।

চিকিৎসকেরা জানাচ্ছেন, খাবারে লবণ ব্যবহারের সঙ্গে রয়েছে মানসিক স্বাস্থ্যের সম্পর্কও। অত্যধিক পরিমাণে লবণ খেলে স্ট্রেসের সমস্যা দেখা দিতে পারে। সম্প্রতি একটি গবেষণা করা হয়। যেখানে বেশ কিছু সংখ্যক মানুষের মধ্যে পরীক্ষা চালানো হয়। সমীক্ষায় উপস্থিত ব্যক্তিদের কিছু সংখ্যককে অত্যধিক লবণ দেওয়া খাবার দেওয়া হয়। আর কিছু সংখ্যক ব্যক্তিকে সঠিক পরিমাণে লবণ দেওয়া খাবার দেওয়া হয়।

সমীক্ষা শেষে দেখা গিয়েছে, যারা অত্যধিক পরিমাণে লবণ দেওয়া খাবার খেয়েছেন, তাঁদের মধ্যে বেড়েছে স্ট্রেসের সমস্যা। শুধু তাই নয়, উদ্বেগজনিত সমস্যা, আগ্রাসন এবং অবসাদও বেড়েছে এর ফলে। তাই বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন যে, মানসিক দিক থেকেও সুস্থ থাকতে খাবারে লবণ ব্যবহার করা দরকার পরিমাণ মতো। পাশাপাশি অত্যধিক লবণ দেওয়া খাবার খাওয়া থেকেও বিরত থাকা দরকার।