• শনিবার   ২৬ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১২ ১৪২৯

  • || ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শরীয়তপুর বার্তা
ব্রেকিং:
যারা উন্নয়ন দেখে না, তারা চাইলে চোখের ডাক্তার দেখাতে পারে- প্রধানমন্ত্রী অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আইওআরএ মন্ত্রীদের সাক্ষাৎ যোগাযোগ সম্প্রসারণে বাংলাদেশের সহযোগিতা চায় আমিরাত আ.লীগ স্বাস্থ্য খাতকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়: প্রধানমন্ত্রী এমপিদের ভবন প্রাঙ্গণে মীনা বাজার স্থাপন আনন্দের: স্পিকার ব্যাংকে টাকা না থাকার গুজবে চোরেরা সুযোগ নেবে: প্রধানমন্ত্রী ‘যা চাইবেন তার চেয়ে বেশি দেবো, ওয়াদা দেন নৌকায় ভোট দেবেন’ মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন সচিব সভায় ১০ নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী

শামীমাদের চার-ছক্কার বৃষ্টিতে ভেসে গেলো থাইল্যান্ড

শরীয়তপুর বার্তা

প্রকাশিত: ১ অক্টোবর ২০২২  

‘চার ছক্কা হই হই, বল গড়াইয়া গেলো কই’-২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে তৈরি করা এই থিম সং সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বাজছে। আর এই গানের তালে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশের দুই ওপেনার শামীমা সুলতানা ও ফারজানা হক চার-ছক্কার বৃষ্টি নামালেন। আর এই চার-ছক্কার বৃষ্টিতেই ভেসে গেছে থাইল্যান্ড। এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জোত্যির বিশাল ছক্কায় ৫০ বল হাতে রেখে ৯ উইকেটে জয় পেয়ে যায় স্বাগতিকরা।

৮৩ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে ব্যাটিং করতে থাকে বাংলাদেশ। প্রথম পাওয়ার প্লেতেই নিগার সুলতানার দল তুলে ফেলে বিনা উইকেটে ৫৫ রান। জয় থেকে ১৪ রান দূরে থাকতে শামীমা থিপাচা পুত্থাওংয়ের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হন। মাত্র ১ রানের জন্য ক্যারিয়ারের তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি বঞ্চিত হন তিনি। ৩০ বলে ১০ চারে ১৬৩ দশমিক ৩৩ স্ট্রাইকরেটে ৪৯ রান করে আউট হন এই ব্যাটার। বাকি পথটুকু অনায়সেই পাড়ি দেয় ফারজানা হক ও নিগার সুলজানা। যদিও শামীমরা আউটের পর সেই আক্রমণাত্মক মেজাজে কিছুটা ভাটা পড়ে। ফারজানা ২৯ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ২৬ রানে অপরাজিত থাকনে। অন্যদিকে অধিনায়ক জোত্যি ১ ছক্কায় ১১ বলে ১০ রানে অপরাজিত থাকেন।

এদিকে টস হেরে বোলিং পাওয়া বাংলাদেশ শুরু থেকেই থাইল্যান্ডকে চেপে ধরেছিল। ১৬ রানে দুই উইকেট হারায় থাইল্যান্ড। প্রথম ৮ ওভার পর্যন্ত প্রতিপক্ষ কেউই বাউন্ডারির দেখা পাননি। নবম ওভারের জাহানারাকে পর পর দুই চার মেরে বাউন্ডারির খড়া কাটায় থাইল্যান্ড। যদিও বেশিক্ষণ সেই লড়াই চালাতে পারেননি নথকান চনথাম ও ফন্নিটা মায়া।

বাংলাদেশের স্পিনারদের ঘূর্ণিজাদুতে থাইল্যান্ড ১৯ দমমিক ৪ ওভারে ৮২ রানে অলআউট হয়। চনথাম ৩৮ বলে ২০ ও মায়া ২২ বলে ২৬ রানের ইনিংস খেলেন। এর বাইরে কেউই দুই অংকের বেশি করতে পারেননি।

বাংলাদেশের স্পিনার রুমানা আহমেদ ৯ রানে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নিয়েছেন। এছাড়া সোহেলি আক্তার, সানজিদা আক্তার ও নাহিদা আক্তার নেন দুটি করে উইকেট। অভিজ্ঞ সালমা নেন একটি উইকেট। একমাত্র পেসার জাহানারা ২ ওভারে বোলিং করে ১৫ রান খরচায় উইকেট শূন্য ছিলেন।

শনিবার এই ম্যাচ দিয়েই সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দুই নম্বর গ্রাউন্ডের অভিষেক হয়েছে। ভেন্যুর অভিষেক রাঙিয়ে তুলতে সিলেটের বিভিন্ন জেলা থেকে দর্শকরা এসেছেন খেলা দেখতে। তীব্র গরমে কষ্ট পেলেও শামীমা-ফারাজার ব্যাটে সেই কষ্ট উবে গেছে দর্শকদের। আরেফিন নামের এক ক্রিকেট ভক্ত সুনামগঞ্জ থেকে এসেছেন। মেয়েদের ক্রিকেট নিয়ে অনেক বেশি আশা তার। এই কারণে তীব্র রোদও আরেফিনকে আটকে রাখতে পারেনি। রোদ মাথায় নিয়ে আরেফিনের মতো বহু দর্শক মাঠে সরব ভূমিকাতে।